বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতি এখন পদ্মায় নিমজ্জিত: কাদের

আগের সংবাদ

বন্যায় দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে আছি: র‌্যাবের মহাপরিচালক

পরের সংবাদ

পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খুলতে যন্ত্রপাতি ব্যবহার করেন বায়েজিদ

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২২ , ২:০১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৭, ২০২২ , ২:৩৫ অপরাহ্ণ

পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খুলতে যন্ত্রপাতি ব্যবহার করেন টিকটকার বায়েজিদ তালহা। কোনো যন্ত্রাংশ ছাড়া শুধুমাত্র হাত দিয়ে পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা সম্ভব নয়।

আজ সোমবার (২৭ জুন) এ কথা জানান সিআইডির সাইবার শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার মো. রেজাউল মাসুদ। তিনি বলেন, এটি একটি অন্তর্ঘাতমূলক কাজ। পদ্মা সেতুর যারা-যারা নাট-বল্টু খুলেছে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে।

সোমবার টিকটকার বায়েজিদ তালহাকে সিআইডির সংবাদ সম্মেলনে হাজির করা হয়। ছবি: ভোরের কাগজ

পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলার ভাইরাল হওয়া ভিডিওর যুবক বায়েজিদ তালহাকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। সোমবার দুপুরে মালিবাগ সিআইডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সাইবার ইন্টিলিজেন্স অ্যান্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ বলেন, গ্রেপ্তারকৃত বায়জিদ তালহার একটি টিকটক আইডি রয়েছে এবং তার আরেক বন্ধু কায়সারের টিকটক আইডি থেকে রবিবার ৩০ থেকে ৩৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও আপলোড হয়েছে। ভিডিওটি আপলোড হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে তাকে শনাক্ত করে অবস্থান নিশ্চিত করে গ্রেপ্তার করি।

তিনি আরও বলেন, রবিবার সকাল সাতটা থেকে ১০-১১ টার মধ্যে ঘটনাটা ঘটেছে। বায়জিদ ও কায়সার দুই বন্ধু মিলে গাড়িতে করে যায়। বায়জিদ গাড়ি চালাচ্ছিল। জাজিরা প্রান্ত ৩০ থেকে ৩৫ নম্বর পিলারের মাঝখানে নেমে নাট-বল্টু খুলে ফেলা, তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করা, ব্যঙ্গ করে মানুষের অনুভূতিতে আঘাত করে। প্রাথমিকভাবে আমাদের মনে হয়েছে, এটা একটা অন্তর্ঘাতমূলক কাজ।

সোমবার সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সিআইডির সাইবার শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার মো. রেজাউল মাসুদ। ছবি: ভোরের কাগজ

কীভাবে করেছে তা জানতে চাইলে রেজাউল মাসুদ বলেন, আমরা তার কাছ থেকে ডিভাইস উদ্ধার করেছি, আরও কিছু ডিভাইস, তার আরও কিছু ভিডিও, আগের অ্যাক্টিভিটিজ দেখে মনে হয়েছে এটা অন্তর্ঘ্তমূলক কাজ।

এই কাজটা করার ক্ষেত্রে তার যে অপরাধমানস, আমরা মনে করছি, এই জিনিসটা এভাবে খোলার কথা না। এত বড় স্থাপনার নাট-বল্টু হাত দিয়ে খোলার কথা না। ভিডিওতে আমরা সবাই দেখছি সহজেই খুলে যাচ্ছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কী জানা গেছে জানতে চাইলে সিআইডির এই কর্মকর্তা বলেন, সবকিছু বিবেচনায় আমরা মনে করছি এই কাজটা সেই করেছে, তার একটা প্লান ছিল। বাকিটা তদন্তে আসবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ধারণা, এতে বিরোধীদের ষড়যন্ত্র আছে, কিছু প্রাপ্তি আছে, তার আগের অ্যাক্টিভিটি সব আমরা দেখছি। আপনারা যে ভিডিও দেখেছেন তার বাইরেও কিছু ভিডিও আমরা পেয়েছি।

রেজাউল মাসুদ বলেন, এই নাট হাত দিয়ে কোনোভাবে খোলার কথা না। কোনোভাবে সম্ভব না। ধরেই নিতে হবে, এই কাজটা তারা করেছে, তাদের সহযোগী আছে, তাদের পরিকল্পনা আছে। মুহূর্তের মধ্যে আমরা বলতে পারবো না।

তিনটা বিষয় এক্ষেত্রে ঘটেছে। মানুষের অনুভূতি, দেশের ভাবমূর্তি এবং অন্তর্ঘাতমূলক কাজ। এই তিনটার মধ্যে অন্তর্ঘাতমূলক কাজটা হয়েছে। এখানে তার অপরাধমানস আছে। যে কারণে আমরা মামলা দিয়েছি।

একটা অপরাধ করার পর যে কাজগুলো হয়, সেটা সে স্বীকার করেছে। এই কাজটটা করলাম, পোস্ট ডিলেট করলাম, আইডি ডিয়েক্টিভ করলাম, টিকটক.. এগুলো দেখে বোঝা যায় অপরাধমানস।

তিনি বলেন, এতবড় স্থাপনার ভেতরের নাটবল্টু এভাবে খুলার কথা না। আমরা ব্রিজ অথরিটির সঙ্গে কথা বলেছি, তারা জানিয়েছে এটা এভাবে হাত দিয়ে খোল সম্ভব না। হাত দিয়ে খোলা সম্ভব না মানে অবস্যই ইনস্ট্রোমেন্ট ব্যবহার হয়েছে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়