মালয়েশিয়াকে গোলবন্যায় ভাসাল সাবিনারা

আগের সংবাদ

সেন্ট লুসিয়ায় তিন টাইগার পেসারের অগ্নিপরীক্ষা

পরের সংবাদ

ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া টাইগাররা

প্রকাশিত: জুন ২৩, ২০২২ , ১১:০০ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৩, ২০২২ , ১১:০০ অপরাহ্ণ

সেন্ট লুসিয়ায় শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ। হারলে হোয়াইট ওয়াশ, জিতলে সমতা। এমন কঠিন সমীকরণ সামনে নিয়ে মাঠে নামছে টাইগাররা। প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ ৭ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে স্বাগতিকরা। ধবলধোলাই এড়াতে এ টেস্টে সাকিব বাহিনীকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। সেন্ট লুসিয়ায় আগের ৯ টেস্টে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের রেকর্ড তেমন ভালো নয়। মাত্র ১ টেস্ট জিতেছে তারা এই মাঠে, সেটি বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১৪ সালে। ৪টি ড্র করেছে এবং বাকি ৪টিই তারা প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছে। এই পরিসংখ্যান থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে বাংলাদেশ দল এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ে নামতে পারে। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের বার বার ব্যর্থতার পরও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে লড়াই করতে মরিয়া রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা।

পরদিন শুক্রবার (২৪ জুন) সেন্ট লুসিয়ার ড্যারেন সামি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়। টি স্পোর্টস ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

টপ অর্ডারে ব্যাটারদের ব্যর্থতা বাংলাদেশ দলের জন্য এখন নিয়মিত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিজেদের ত্রুটিগুলো দূর করার কোনো উপায়ই যেন খুঁজে পাচ্ছে না লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ পাঁচটি টেস্টে নিয়মিত ব্যাটিং বিপর্যয়ের শিকার হয়েছে টাইগাররা। সেটি হয় প্রথম ইনিংসে, না হয় দ্বিতীয় ইনিংসে। ফলে পরাজয়ের লজ্জা মাথা পেতে নিতে হয়েছে দলটিকে। সেন্ট লুসিয়ায় এবার সেই ব্যর্থতার পরিসমাপ্তি টানতে হবে। এ পর্যন্ত ১৩৩ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। তন্মধ্যে জয় মাত্র ১৬টি। হেরেছে ৯৯টি ম্যাচে। বাকি ১৮টি ম্যাচ ড্র হয়েছে। অধিকাংশ ড্র’ই বৃষ্টির কল্যাণে পেয়েছে বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু সেন্ট লুসিয়া এমন একটি স্থান, যেখানে ২০০৪ সালের প্রথমবারের মতো প্রতিপক্ষের ওপর আধিপত্য বিস্তার করেছিল বাংলাদেশ। যদিও শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছিল ম্যাচটি।

শুক্রবার উইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে টাইগার একাদশে একাধিক পরিবর্তন আসতে পারে। নাজমুল হোসেন শান্তর জায়গায় এনামুল হক বিজয়কে দেখার সম্ভাবনা জোরালো। ছাড়া মোস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রাম দিয়ে শরিফুল ইসলামকে খেলাতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট।

উইন্ডিজের কন্ডিশন বরাবরই পেসারদের জন্য সহায়ক। শুক্রবার সেন্ট লুসিয়া টেস্টে ক্যারিবীয় কিংবদন্তি মাইকেল হোল্ডিংকে টপকে ২৫০ উইকেটের মালিক হতে চান কেমার রোচ। তিনি বলেছেন,লক্ষ্য অবশ্যই পঞ্চাশ (২৫০) পার হওয়া। এখন ৪৯ (২৪৯) আছে, আশা করি একটা উইকেট পেয়ে যাব আগামী ম্যাচে। এরপর আমার শরীরকে ঠিক করা ৩০০ উইকেটের জন্য। সেটা আমার, দল ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের জন্য আইডিয়াল হবে। এটা অবশ্যই তালিকায় আছে। অ্যান্টিগা টেস্টে রোচ বসেছেন উইন্ডিজ কিংবদন্তি মাইকেল হোল্ডিংয়ের পাশে।

৬০ টেস্টে ২৪৯ উইকেট নিয়ে উইন্ডিজ ইতিহাসে ষষ্ঠ সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক ছিলেন এই কিংবদন্তি। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৭ উইকেট পেয়ে ৭২টি টেস্ট খেলে সমান উইকেট নিয়ে তার পাশে বসছেন রোচ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের ঘোষণা দেয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে চাইবে না। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের দল এই টেস্ট জিতে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের অবস্থান আরো জোরাল করতে চায়।

এ পর্যন্ত ওরেয়স্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৯টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। তন্মধ্যে জয় পেয়েছে মাত্র চারটিতে। হেরেছে ১৩টি ম্যাচে। বাকি দুটি ম্যাচ ড্র হয়েছে। এদিকে টাইগার শিবিরের বড় চিন্তা মুমিনুল হকের ব্যাটিং। নির্ভরযোগ্য ওই ব্যাটসম্যান টানা নয় ইনিংসে দুই অঙ্কের কোটা স্পর্শ করতে পারেননি। প্রথম টেস্টে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে দুই ইনিংস থেকে তার সংগ্রহ ছিল যথাক্রমে শূন্য ও ৪ রান।

মুমিনুল ইচ্ছে করলে বিরতি নিতে পারেন বলেও মন্তব্য করেছেন সাকিব। তবে সাকিবের ধারণার সঙ্গে একমত হয়ে টিম ম্যানেজমেন্ট সাবেক অধিনায়ককে আসন্ন ম্যাচের বাইরে রাখবেন কিনা সেটি এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়