আবাহনীর কাছে পাত্তা পেল না মোহামেডান

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

নেইমারদের মাঠে হবে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল দ্বৈরথ

প্রকাশিত: জুন ২২, ২০২২ , ৭:৫২ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২২, ২০২২ , ৭:৫২ অপরাহ্ণ

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২-এর আঞ্চলিক বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মধ্যকার স্থগিত হওয়া ম্যাচটির নির্দিষ্ট তারিখ ও ভেনু নির্ধারণ করেছে ব্রাজিল। আগামী ২২ সেপ্টেম্বর ব্রাজিলের মাঠেই অনুষ্ঠিত হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর স্থগিত ম্যাচ। গত সেপ্টেম্বরে ব্রাজিলের মাটিতে মুখোমুখি হয়েছিলেন মেসি-নেইমাররা। কিন্তু ম্যাচের সাত মিনিট খেলা গড়াতেই বন্ধ করতে হয়েছে চার আর্জেন্টাইন ফুটবলারের জন্য। বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারি ধারণ করার ফলে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অভিযোগ আনা হয়েছিল আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড় এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো সেলসো এবং ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো করোনার বিধিনিষেধ না মেনে মাঠে নেমেছেন। খেলা চলাকালীন সেই চার খেলোয়াড়কে আটক করার জন্য মাঠে প্রবেশ করার ফলে বাছাইপর্বের ম্যাচটি স্থগিত হয়ে যায়।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে এরই মধ্যে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাসহ উরুগুয়ে ও ইকুয়েডর কাতার বিশ্বকাপের মূলপর্ব নিশ্চিত করেছে। তবে বাছাইপর্বের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর ম্যাচটি এখনো মাঠে গড়ায়নি। এই ম্যাচের মীমাংসার জন্য আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে স্থগিত ম্যাচটি পুনরায় আয়োজনের জন্য নির্দেশ দিয়েছিল ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। স্থগিত ম্যাচটির স্বাগতিক দেশ ব্রাজিল হওয়ায় এই ম্যাচের ভেন্যুও ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশনকে (সিবিএফ) নির্ধারণ করার নির্দেশ দিয়েছিল ফিফা। সিবিএফ প্রাথমিকভাবে ২২ সেপ্টেম্বরকে চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা করলেও ভেন্যু নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিল। প্রথমত, ইউরোপের কোনো মাঠে ম্যাচটি আয়োজন করার চেষ্টা করেছিল সেলেসাওরা। আর্জেন্টিনার সঙ্গে খেলার পাশাপাশি আরেকটি প্রীতিম্যাচ খেলার লক্ষ্য ছিল তাদের। এরপর ইউরোপের পর দ্বিতীয় বিকল্প হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ভেন্যুতে খেলার চিন্তাও করেছিল সিবিএফ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজেদের ঘরের মাঠেই ম্যাচটি আয়োজন করতে যাচ্ছে তারা।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে স্থগিত ম্যাচটির জন্য বিভিন্ন দিক থেকে শাস্তি ঘোষণা করে আনুষ্ঠানিক রায় দিয়েছিল ফিফা। ম্যাচটি স্থগিত হওয়ার সময় ফিফা ও কনমেবল সেই ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে জয়ী ঘোষণা করে ৩ পয়েন্ট দিয়ে দেবে বলে জানালেও পরবর্তীতে আর দেয়নি। এমনকি সে সময়ই ম্যাচটি পুরোপুরি বাতিল না করে আবার খেলার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল তারা। ম্যাচের সার্বিক দিক বিবেচনা করে আর্জেন্টিনার চার ফুটবলারকে দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ ঘোষণার সঙ্গে দুই দেশেরই অ্যাসোসিয়েশনকে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেছে ফিফা। ফিফা কর্তৃক প্রকাশিত রায়ে প্রথমত, নিরাপত্তা ও নির্দেশনা বিঘ্নের দায়ে ব্রাজিল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে ৫ লাখ সুইস ফ্রাঁ জারিমানা করেছে।

এরপর যথাযথ কারণ না দেখিয়ে খেলোয়াড় মাঠে নামানোর দায়ে আর্জেন্টাইন অ্যাসোসিয়েশনকে ২ লাখ সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করেছে। এই শাস্তির সঙ্গে ম্যাচটি পরিত্যক্ত করার অপরাধে দুই দলকেই আরো ৫০ হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করেছে ফিফা। সব শেষে কারণ না দেখিয়ে মাঠে নামানো আর্জেন্টাইন সেই চার ফুটবলার এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো সেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোকে দুই ম্যাচের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ফিফা। ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির এ রায়ের বিপরীতে দুই ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনই তাৎক্ষণিকভাবে অসন্তোষ জানিয়ে পৃথক পৃথক বিবৃতি প্রকাশ করেছে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়