কক্সবাজারে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনের উদ্যোগে অষ্টম যোগ দিবস উদযাপিত

আগের সংবাদ

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলকে মাঠে নামতেই হচ্ছে

পরের সংবাদ

নেপালকে হারিয়ে রাগবি সিরিজ জিতল বাংলাদেশ

প্রকাশিত: জুন ২১, ২০২২ , ১১:২১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২১, ২০২২ , ১১:৪৫ অপরাহ্ণ

রাগবি বিশ্বের দ্বিতীয় জনপ্রিয় খেলা। ১৮৪৬ সালে এই খেলা স্বীকৃতি লাভ করে। ১৮৮০ সালে পুরো ইংল্যান্ডে রাগবি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। ইংল্যান্ড ও সুইজারল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে ১৮৭১ সালে প্রথম আন্তর্জাতিক রাগবি প্রতিযোগিতা শুরু হয়। ১৯৫৪ সালে শুরু হয় রাগবি বিশ্বকাপ। চার বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয় এটি। ২০০৬ সালে বাংলাদেশে রাগবির প্রচলন শুরু। রাগবি দুই দলের খেলা। প্রতি দলে ১৫ জন করে খেলোয়াড় থাকেন। খেলার সময় উভয় দলের খেলোয়াড়দের মূল উদ্দেশ্য থাকে ট্রাই করা ও গোল করা। ট্রাই হলো বিপক্ষ দলের ইনগোলে বল মাটি স্পর্শ করানো এবং গোল হলো দুই গোলপোস্টের মধ্যে এবং ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল পাঠানো।

মূলত গোলের খেলা হলেও এখানে পয়েন্টের হিসাব আছে। ট্রাই হলে পাঁচ পয়েন্ট, গোল কিক থেকে গোল হলে দুই পয়েন্ট, ড্রোপ কিক ও পেনাল্টি কিক থেকে গোল হলে তিন পয়েন্ট হয়। রাগবি খেলার সময় বল হাতে নিয়ে দৌঁড়াতে হয় আর পাস দিলে পেছনে দিতে হবে। শুধু কিক করে সামনে দিয়ে যাওয়া। যে দলের পয়েন্ট নির্দিষ্ট সময় খেলার পর বেশি থাকে, সে দল জয়ী হয়। ধীরে ধীরে বাংলাদেশে রাগবি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। মঙ্গলবার দেশের মাটিতে বাংলাদেশ রাগবি দল প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে মাঠে নেমে ইতিহাস গড়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বনানীর আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-নেপাল-আন্তর্জাতিক রাগবি সিরিজে সফরকারী নেপালকে ২-০ ম্যাচে হারিয়ে সিরিজ জিতেছেন লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

বাংলাদেশ-নেপাল আন্তর্জাতি রাগবি সিরিজে দুই দেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে বল লড়াইয়ের লড়াই

এর আগে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান। উপস্থিত ছিলেন রাগবি ফেডারেশনের সভাপতি ও ঢাকা-১০ আসনের সাংসদ শফিউল ইসলাম। তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচ রাগবি সেভেনস। বুধবার তৃতীয় ম্যাচটি হবে রাগবি ফিফটিনস। এর আগে দেশের বাইরে এশিয়ান রাগবি টুর্নামেন্টে নেপালকে দুবার হারিয়েছিল বাংলাদেশ। মঙ্গলবার জয়টা অনুমিত ছিল। শুরু থেকেই দাপটের সঙ্গে খেলে জয় তুলে নিয়েছে। বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের কাছে মোটেও পাত্তা পায়নি নেপাল।

আন্তর্জাতিক রাগবি সিরিজ উপলক্ষে ঢাকায় এসেছেন এশিয়ান রাগবি ফেডারেশনের সভাপতি কায়েস আবদুল্লাহ আল দালাই। বাংলাদেশ এমন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট যেন আরও বেশি আয়োজন করতে পারে, সে ব্যাপারে সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিলেন দালাই, এখানে আসতে পেরে খুবই ভালো লেগেছে আমার। এর আগেও বাংলাদেশকে সহযোগিতা করেছে এশিয়ান রাগবি ফেডারেশন। এটা নতুন কিছু নয় আমাদের জন্য। আরো বেশি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে যা সহযোগিতা প্রয়োজন, সেগুলো করতে চাই আমরা।

দেশের মাটিতে প্রথম আন্তর্জাতিক রাগবি ম্যাচে জয় এবং সিরিজ জিতে ইতিহাস গড়েছে রাগবি দল। আন্তর্জাতিক এই রাগবি সিরিজের জন্য তিন মাসের প্রস্তুতি নিয়েছে বাংলাদেশ। এই দলের সব খেলোয়াড়ই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর। নেপাল দলের আটজন সে দেশের সেনাবাহিনীর। প্রথমবার দেশে আয়োজিত হলো কোনো আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা। এমন একটি প্রতিযোগিতার অংশ হতে পেরে গর্বিত বাংলাদেশ রাগবি দলের অধিনায়ক নাদিম মাহমুদ। জাতির জনকের নামে প্রথম আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছে ফেডারেশন। এই টুর্নামেন্টে প্রথম ম্যাচ জিতে ইতিহাসের অংশ হয়েছি। খুবই ভালো লাগছে আমার।

পরের ম্যাচগুলো জিতে সিরিজও নিশ্চিত করতে চান মাহমুদ, প্রচণ্ড গরমে খেলতে গিয়ে একটু সমস্যা হচ্ছিল। কিন্তু আমাদের খেলোয়াড়দের ফিটনেস ভালো। পুরো ম্যাচেই সবাই ভালো খেলেছেন।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বনানী আর্মি স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার নেপাল-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক রাগবি সিরিজের প্রথম ম্যাচে নেপালকে ২০-০ পয়েন্টে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সেভেন সাইড রাগবি ম্যাচে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক নাদিম সর্বোচ্চ ১০ পয়েন্ট এনে দেন। এছাড়া আনোয়ারুজ্জামান ও সোহেল আহমেদ ৫ পয়েন্ট করে অর্জন করেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে সফরকারী নেপাল কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেনি। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয়টি অনুষ্ঠিত হয় বিকালে। বঙ্গবন্ধু রাগবি সিরিজে দিনের শুরুতে নেপালকে অনায়াসে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। বিকালের ম্যাচেও জিততে কোনো সমস্যা হয়নি স্বাগতিকদের। ১৯-০ পয়েন্টে নেপালকে উড়িয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছেন নাদিম-ওবায়দুলরা। তিন ম্যাচের সিরিজ এক ম্যাচ আগেই ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (২১ জুন) আর্মি স্টেডিয়ামে সেভেন-এ-সাইড ম্যাচে প্রথমার্ধে স্বাগতিকরা ১২-০ পয়েন্টে এগিয়ে ছিল। বাংলাদেশ অধিনায়ক নাদিম মাহমুদ এ ম্যাচেও দুর্দান্ত খেলেছেন। পেয়েছেন ৭ পয়েন্ট। এছাড়া আনোয়ারুজ্জামান ও ওবায়দুল পাঁচটি করে পয়েন্ট সংগ্রহ করেন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়