পদ্মা সেতু থেকে বছরে জিডিপিতে যোগ হবে ১০ বিলিয়ন ডলার

আগের সংবাদ

ঈদ উপলক্ষে বুধবার থেকে সুলভ মূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি

পরের সংবাদ

পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে থানা উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী

গ্রামীণ ব্যাংকের পদ হারানোর কষ্টে পদ্মা সেতুর বিরুদ্ধে ড. ইউনূস

প্রকাশিত: জুন ২১, ২০২২ , ৮:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২১, ২০২২ , ৮:৩৬ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) পদ ছাড়ার কষ্টে পদ্মা সেতুর বিরোধিতা করেন ড. মুহাম্মদ ইউনূস।

মঙ্গলবার (২১ জুন) বিকেলে পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে দুই থানা উদ্বোধন উপলক্ষে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের একজন বিশ্বখ্যাত মানুষ হলেও একটা ব্যাংকের এমডি পদ তার বয়সের কারণে ছেড়ে দিতে হচ্ছে সেটা মানতে পারেননি ইউনূস। একদিকে আমাদের সরকারের বিরুদ্ধে দুই-দুইটা মামলা করে হেরে গেছে, পরবর্তীতে বিশ্ব ব্যাংকের কাছে তদবির করে- যেভাবেই হোক আমাদের পদ্মা সেতুর অর্থায়ন বন্ধ করে দিয়েছিল। দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ আরোপ করা হয় আমাদের ওপর। যখন দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ করতে পারে না, তখন বলে দুর্নীতির ষড়যন্ত্র ছিল। এটাকে আমি চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলাম এবং সেই থেকে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম আমরা বাংলাদেশের মানুষ জাতির পিতার ডাকে সাড়া দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করে বিজয় অর্জন করেছি, কাজে পদ্মা সেতু নিয়ে যখন মিথ্যা অপবাদ দেওয়া হয় এবং একটি মামলাও করে বিশ্ব ব্যাংক কানাডা আদালতে, সেই আদালতের রায়ে স্পষ্টভাবে কোর্ট বলে দেয়- এখানেও কোনো দুর্নীতি তো হয়নি, বিশ্ব ব্যাংক যেসব অভিযোগ করেছে সেগুলো সব ভুয়া, বানোয়াট, মিথ্যা।

শেখ হাসিনা বলেন, আল্লাহর রহমতে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু তৈরি করেছি। এই পদ্মা সেতুতে যারা চলাচলকারীদের নিরাপত্তা বিধান করাও আমাদের কর্তব্য। কাজেই পদ্মা সেতুকে সুরক্ষিত করা এবং যাত্রী সেবা দেয়া আমাদের কর্তব্য। সে জন্য শরীয়তপুরের জাজিরায় পদ্মা সেতু দক্ষিণ আর মুন্সিগঞ্জের মাওয়ায় পদ্মা সেতু উত্তর- এই দুটি থানার আধুনিক ভবন সম্পন্ন করা হয়েছে।

পদ্মা সেতুর নিরাপত্তায় মঙ্গলবার থেকে দুই পাড়ে চারতলা ভবনবিশিষ্ট দুটি নতুন থানার যাত্রা শুরু হচ্ছে। সেতু উদ্বোধনের আগেই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে থানা দুটির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরইমধ্যে সব কার্যক্রম শেষ করে থানা দুটিতে জনবলও পদায়ন করা হয়েছে।

সেতুর দুই প্রান্তের প্রবেশমুখে গড়ে তোলা নান্দনিক চারতলা থানা ভবন শুধু যোগাযোগই নয়, সেতুটিকে ঘিরে বদলে যাওয়া এলাকার নিরাপত্তাকেও গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। দুটি থানা মূলত সেতুর নিরাপত্তা এবং সংশ্লিষ্ট এলাকার সাধারণ মানুষের আইনি সহায়তার জন্য কাজ করবে।

প্রতিটি থানায় একজন সহকারী পুলিশ সুপারসহ ৪০ জন করে পুলিশ সদস্য দায়িত্বে থাকবেন বলে জানিয়েছেন মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার আবদুল মোমেন।

সেতুর শরীয়তপুরের জাজিরা পয়েন্টে ‘পদ্মা দক্ষিণ থানার’ আওতায় পূর্ব নাওডোবা ও পশ্চিম নাওডোবা ইউনিয়ন। আর মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ‘পদ্মা উত্তর থানার’ আওতায় থাকছে মেদিনীমণ্ডল ও কুমারভোগ ইউনিয়ন। নতুন এ দুই থানা নিয়ে সারা দেশে মোট ৬৬৪টি থানা হলো। নতুন এ দুটি থানা উদ্বোধনে খুশি এলাকাবাসী এবং দায়িত্ব পাওয়া পুলিশ সদস্যরা।

আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেতুটি রাজধানীর সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপন করবে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়