বৃষ্টি নেই তবুও উৎসবে বর্ষা বরণ

আগের সংবাদ

দুর্নীতির অভিযোগে আইডিআরএ চেয়ারম্যান মোশাররফের পদত্যাগ

পরের সংবাদ

চার শিক্ষিকাকে হেনস্তার ঘটনায় মূল হোতাসহ গ্রেপ্তার ৪

প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২২ , ১:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১৫, ২০২২ , ১:১৮ অপরাহ্ণ

উত্যক্তের প্রতিবাদ করলেই ছাত্রীদের অ্যাসিড নিক্ষেপের হুমকি দেয়া হতো

রাজধানীর গুলিস্তান ও কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থেকে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- আল আমিন ওরফে সোহেল ওরফে ভিআইপি রানা ওরফে প্রিন্স রানা (২২), সৌরভ মিয়া ওরফে বাবু (১৭), সোহান ওরফে হিরা (১৭) ও সীমান্ত (১৭)।

র‍্যাব জানিয়েছে, গ্রেপ্তারকৃতরা ভিআইপি রানা কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে একটি বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করে ছাত্রী উত্যক্ত করা ও এর প্রতিবাদ করায় চার শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিতের ঘটনার মূল হোতা। বাকিরা তার সহযোগী। আল আমিন ওরফে সোহেল ওরফে ভিআইপি রানা ওরফে প্রিন্স রানা এলাকায় উঠতি বয়সী কিশোরদের নিয়ে একটি সংঘবদ্ধ চক্র গড়ে তোলেন। বিবাহিত হলেও এলাকায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীদের অনেকদিন ধরেই উত্যক্ত করে আসছিলেন তিনি। এই চক্রের অন্য সদস্যরাও বিভিন্ন সময় ছাত্রীদের স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে উত্যক্ত করাসহ এলাকায় বিভিন্ন অপকর্ম করে বেড়াত। স্কুলগামী ছাত্রীদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে চাইলে তিনি তাদের অ্যাসিড নিক্ষেপের হুমকিও দিতেন।

করিমগঞ্জে একটি বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করে ছাত্রী উত্যক্ত করা ও এর প্রতিবাদ করায় চার শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে বুধবার (১৫জুন) দুপুরে রাজধানীর কাওরান বাজারের র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গত ১২ জুন কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার জঙ্গলবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রাক নির্বাচনী ও দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা চলাকালীন সময় বহিরাগত কিছু বখাটে ছেলে বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় তলায় উঠে ছবি তোলার চেষ্টা করে। এ সময় স্কুলের কয়েকজন শিক্ষিকা বখাটে ছেলেদের স্কুল থেকে চলে যেতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটেরা তাদের দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। ওইদিনই বিকালে স্কুল শেষে কয়েকজন শিক্ষিকা অটোরিকশা যোগে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে করিমগঞ্জ থানাধীন তালিয়াপাড়া এলাকায় বখাটেরা তাদের গতিরোধ করে। শিক্ষিকাদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত, শ্লীলতাহানি ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন তারা। এই ঘটনায় বখাটে ছেলেদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে স্কুলের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা বন্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। পরে এ ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে করিমগঞ্জ থানায় একটি মামলা করে। সেই মামলার প্রেক্ষিতেই র‌্যাব ওইসব বখাটেদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায়। এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৪ ও সদরদপ্তরের দল যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার রাতে কিশোরগঞ্জ ও রাজধানীর গুলিস্তান এলাকা থেকে চারজনকে গ্রেপ্তার করে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় কেউ তাদের অপকর্মে বাধা দিলে বা প্রতিবাদ করলে গ্রেপ্তারকৃত ভিআইপি রানার নেতৃত্বে ওই চক্রের সদস্যরা তাদেরকে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন ও রাস্তাঘাটে হেনস্তা করতেন। বর্ণিত ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হওয়া শিক্ষার্থীরা বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করলে জড়িতরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেপ্তার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যায়। প্রথমে তারা করিমগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করে। পরবর্তীতে গ্রেপ্তারকৃত সোহেল রাজধানীর গুলিস্তানে এক নিকটাত্মীয়ের বাসায় আত্মগোপন করে। গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়