দুর্নীতির অভিযোগে আইডিআরএ চেয়ারম্যান মোশাররফের পদত্যাগ

আগের সংবাদ

সিসিইউ থেকে কেবিনে খালেদা জিয়া

পরের সংবাদ

উদীচীর বর্ষা উৎসবে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহারা শ্রমিকদের রেশন চালুর দাবি

প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২২ , ২:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১৫, ২০২২ , ২:০৫ অপরাহ্ণ

বর্ষায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ও কর্মহারা শ্রমিকদের জন্য রেশন চালুর দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী উদযাপন করেছে বর্ষা উৎসব। বুধবার (১৫ জুন) সকালে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এ উৎসব আয়োজন হয়। বরাবরের মতো উদীচী ঢাকা মহানগর সংসদ ছিল উৎসবের আয়োজক।

উৎসবের আয়োজকরা বলেন, শহুরের মধ্যবিত্ত শ্রেণির বৃষ্টিবিলাসের উদ্দেশ্যে বর্ষা উৎসবের আয়োজন নয়, ঋতুভিত্তিক এ অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে গ্রাম-নগরের শ্রমজীবী মানুষের জীবন আরাধনাই উদীচীর লক্ষ্য। আয়োজকরা শ্রমজীবী মানুষের জীবন আরাধনার পাশাপাশি প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে গড়ে ওঠা নানা প্রকল্প বাতিল, অপরিকল্পিত উন্নয়ন বন্ধ এবং দখল হওয়া নদ-নদী উদ্ধারের দাবিও জানান।

বর্ষা কথন পর্বে প্রধান কথক অধ্যাপক রতন সিদ্দিকী বলেন, বর্ষা জলে প্রাণ-প্রকৃতি শুদ্ধ হয়। বর্ষা তার সহজাত শক্তি নিয়েই জীবন, আচার, সংস্কৃতি ও সাহিত্য অধিকার করে থাকে। বর্ষার প্রথম বৃষ্টি যেমন খরতাপে মুষড়ে পড়া প্রকৃতিকে জাগিয়ে তোলে তেমনি সাংস্কৃতিক আন্দোলনের শক্তিও ঘুমন্ত মানুষকে জাগিয়ে তোলে সাম্য ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখবে।

ঢাকা মহানগর উদীচীর সহ-সভাপতি হাবিবুল আলমের সভাপতিত্বে কথনপর্বে আলোচনা করেন উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে। বর্ষাকথন উপস্থাপন করেন কেন্দ্রীয় সম্পাদকমন্ডলির সদস্য কবি রহমান মুফিজ। সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর উদীচীর সাধারণ সম্পাদক আরিফ নূর।

এরআগে সকাল ৭টায় মেঘমল্লার রাগের ওপর জ্যোতি ব্যানার্জির সেতার বাদনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বর্ষা উৎসবের আয়োজন। এরপর সমবেত গান পরিবেশন করেন ঢাকা মহানগর সংসদ, উদীচী মিরপুর, বাড্ডা, লালবাগ, রায়েরবাজার ও সাভার শাখা। নৃত্য পরিবেশন করেন উদীচী কাফরুল শাখা ও নৃত্যশিল্পী মুক্তা ঠাকুর। আবৃত্তি করেন অনন্যা লাবনী পুতুল, বেলায়েত হোসেন ও মিজানুর রহমান সুমন। একক গান করেন, বিজন চন্দ্র মিস্ত্রি, মেহেদী ফরিদ ও রেজাউল করিম টুলু। পথনাটক ‘বরাক বাঁশ’ পরিবেশন করেন উদীচী ঢাকা মহানগর সংসদের নাটক বিভাগ। নাটকের নির্দেশনা দেন নাজমুল হক বাবু। সাংস্কৃতিক আয়োজন পরিচালনা করেন শিখা সেনগুপ্তা ও মিনহাজুল আবেদীন মৃদুল।

রি-এসবি/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়