এনজিওগ্রাম করা হবে খালেদা জিয়ার

আগের সংবাদ

মৌলভীবাজারে চলন্ত পারাবত এক্সপ্রেসের আগুন নিয়ন্ত্রণে, ট্রেন চলাচল বন্ধ (ভিডিও)

পরের সংবাদ

সীতাকুণ্ডে দগ্ধ ফায়ার সার্ভিস কর্মী গাউসুলের অবস্থা শঙ্কটাপন্ন

প্রকাশিত: জুন ১১, ২০২২ , ১:৩৯ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১১, ২০২২ , ১:৩৯ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ডিপোতে বিস্ফোরণে দগ্ধ ফায়ার সার্ভিস কর্মী গাউসুল আজমের (২২) অবস্থা শঙ্কটাপন্ন। তাকে লাইফ সাপোর্টে বিশেষভাবে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শনিবার (১১ জুন) দুপুরে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এখন পর্যন্ত ২০ জন রোগীই এখানে ভর্তি রয়েছে। এদের মধ্যে গাউসুল সহ ফায়ার সার্ভিসের আরেক কর্মী রবিন মিয়া (২২) ও কনটেইনার চালক নজরুল মন্ডল (৩৮) নিবির পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি আছে। বাকিরা পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ডে আছে। গাউসুল আজমের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। বাকিদের অবস্থাও একেবারে আশঙ্কামুক্তও বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, আজকে সকালে সব চিকিৎসকরা মিলে রোগীদের ওয়ার্ডে রাউন্ড ও বেলা ১১টার দিকে মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকরা একটি মিটিং করেছি। সেখানে প্রত্যেকটা রোগীর পর্যালোচনা করা হয়েছে। তাদের চোখের সমস্যাগুলো আমরা দেখছি। আগামীকাল অধ্যাপক ডা. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ সহ জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের পরিচালক রোগীদের আবার এসে দেখবেন। এরপর সম্মিলিতভাবে সিদ্ধান্ত নিবো তাদের চিকিৎসায় পরবর্তিতে আর কি করা যায়।

তিনি বলেন, রোগীদের রক্ত লাগবে এটা জানার পর অনেকেই স্বেচ্ছায় রক্ত দিয়েছেন। এখন আমাদের এখানে প্রচুর পরিমান রক্ত মজুত আছে। নতুন করে রক্ত রাখার জায়গাও নাই। আপাতত আমাদের আর রক্ত লাগছেনা।

এদিকে গাউসুল আজমের স্বজনরা জানান, গাউসুলের শরীরের ৭০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তার বাড়ি যশোর মনিরামপুর। বাবার নাম আজগর গাজী। চট্টগ্রামের কুমিরা ফায়ার স্টেশনে কর্মরত ছিলেন তিনি।

রি-এআরজে/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়