কারাগারে ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা দিলেন এক শিক্ষার্থী

আগের সংবাদ

খালেদা জিয়ার হার্টে ৯৫ শতাংশ ব্লক, পরানো হয়েছে রিং

পরের সংবাদ

বিএসএমএমইউতে চালু হলো হার্ট ফেলিউর ক্লিনিক

প্রকাশিত: জুন ১১, ২০২২ , ৩:০৯ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১১, ২০২২ , ৩:৩৯ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চালু হয়েছে ‘হার্ট ফেলিউর ক্লিনিক’। শনিবার (১১ জুন) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি ব্লকের ৪র্থ তলায় হৃদরোগ বিভাগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ এ ক্লিনিকের উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন। এতে বক্তব্য রাখেন ইউজিসি অধ্যাপক ডা. সজলকৃষ্ণ ব্যানার্জী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হৃদরোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক। অধ্যাপক ডা. এসএম মোস্তফা জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের হৃদরোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা. চৌধুরী মেশকাত আহমেদ এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহযোগী অধ্যাপক ডা. আরিফুল ইসলাম জোয়ারদার টিটো।

অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশের বিভিন্নপ্রান্তে হৃদরোগের বিভিন্ন ধরণের রোগী ছড়িয়ে ছিটিয়ে বিচ্ছিন্নভাবে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন। তবে এসব হৃদরোগ আক্রান্ত রোগীরা যথাযথ তত্ত্বাবধানে না থাকায় যথাযথ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের হৃদরোগ বিভাগে চালুকৃত ‘হার্ট ফেলিউর ক্লিনিক’ এসব রোগীদের একই ছাদের নিচে এনে যথাযথ তত্ত্বাবধান করবে। হৃদরোগে আক্রান্ত হাসপাতালে ভর্তি ও ভর্তি ছাড়া রোগীদের তথ্য একসঙ্গে সংগ্রহে রাখবে এ বিভাগ। এতে দেশের হৃদরোগে আক্রান্ত জনসাধারণ সম্পর্কে সম্যক ধারণা হবে এবং গবেষণার সুযোগ আরও বৃদ্ধি পাবে। হৃদরোগীদের দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসার একটি সুনির্দিষ্ট গাইড লাইন তৈরী হবে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে হৃদরোগীদের সর্বাধুনিক চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে। এই বিভাগকে এমনভাবে তৈরি করা হচ্ছে যাতে করে হৃদরোগীদের চিকিৎসার জন্য আর দেশের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নাই। উপাচার্য তার বক্তব্যে জাতীয় বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে ১০ শতাংশ বরাদ্দ দেওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন।

ইউজিসির সম্মানিত অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী বলেন, হার্ট ফেলিউর ক্লিনিক চালু হওয়ার মাধ্যমে দীর্ঘ দিনের একটি লালিত স্বপ্নের পূরণ হলো। এই ক্লিনিকের মাধ্যমে শুধু রোগ নির্ণয় নয়, গবেষণাসহ এ ধরণের রোগীদের সঠিক ফলোআপ বিষয়টি নিশ্চিত হবে, যা রোগীদের জীবন বাঁচাতে বিরাট অবদান রাখবে।

রি-এসডি/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়