চট্টগ্রামের চিকিৎসকদের চমেকে যাওয়ার আহ্বান, রক্তের জন্য হাহাকার

আগের সংবাদ

আহতদের জন্য জরুরি রক্তদানের আহ্বান

পরের সংবাদ

বৈরুতের মতো ভয়াবহ বিস্ফোরণ, কেঁপে ওঠে ৪ কিলোমিটার এলাকা

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২২ , ৩:০৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ৫, ২০২২ , ৩:০৯ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের বিএম ডিপোতে আগুন লাগার পর এতোটা ভয়াবহ ও শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটেছে যে ঘটনাস্থল থেকে চারদিকের প্রায় চার কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠেছে।

এ ঘটনাকে বহুল প্রচারিত একটি ইংরেজী দৈনিকের সাংবাদিক মোস্তফা ইউসুফ বর্ননা করেছেন এভাবে: ” যে বিস্ফোরণ হয়েছে সেটা কোন অংশে বৈরুত বন্দরের বিস্ফোরণের চেয়ে কম নয়। আশেপাশে চার কিলোমিটারের মধ্যে থাকা ভবনের কাঁচ ভেঙ্গে পড়েছে। ফায়ার সার্ভিসের যে টিম আগুন নেভাতে কাজ করছিল বিস্ফোরণে তারা জাস্ট উড়ে গেছে৷ শত শত মানুষ দগ্ধ হয়েছে। বিস্ফোরণের তীব্রতা দেখে বুঝা যাচ্ছে এখানে কন্টেইনারে উচ্চমাত্রার কেমিক্যাল ছিল। এমন লোকালয়ে যারা এরকম উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন দাহ্য পদার্থ রাখার অনুমতি দিয়েছে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা হোক। হতাহতের সংখ্যা একমাত্র আল্লাহ মালুম। হাসপাতালে আহতদের দীর্ঘ সারি।”

চট্টগ্রাম মেডিকেলস কলেজ হাসপাতাল এলাকায় আহত, অগ্নিদগ্ধ রোগীদের স্বজন ও স্থানীয় মানুষদের ভিড়। ছবি: ভোরের কাগজ

শনিবার (৪ জুন) দিবাগত মাঝরাতে চমেক হাসপাতালে আসছে একের পর এক আহেতদের গাড়ি, অ্যাম্বুল্যান্স। হাসাপাতাল এলাকায় চলছে আহতদের রক্তের জন্য হাহাকার। গভীর রাতে অগ্নিদগ্ধ রোগীদের স্বজনদেরকে দেখা যাচ্ছে রক্ত চেয়ে প্লেকার্ড উচিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আগুনে পোড়াসহ নানাভাবে আহতদের চিকিৎসায় রক্তের জন্য সাহায্য চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মেডিকেলে বর্তমানে ডিউটি নেই তাদেরকেও দ্রুত মেডিকেলে গিয়ে আহতদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন। মেডিকেল কলেজ এলাকায় যেসব এ্যম্বুলেন্স থাকে তার সবগুলোকেই দুর্ঘটনাস্থল থেকে মেডিকেলে নিয়ে আসার জন্য পাঠানো হয়েছে। রাত ২ টায় এ রিপোর্ট লেখার সময় মেডিকেলে এক অবর্ণনীয় মানবিক বিপর্যয়ের চিত্র দেখা গেছে। চট্টগ্রামে নিকট অতীতে যত অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তাতে এতবড় মানবিক বিপর্যয় ঘটেনি। সীতাকুণ্ড থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পর্যন্ত এই রাতের নিস্তব্ধতা মধ্যে নিহত-আহতদের স্বজনদের আর্তনাদে উপস্থিত সবাই সমব্যাথী হয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। শুধু এম্বুলেন্সের চিৎকার, গুরুতর আহতদেরকে নিয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসক নার্স ও রোগীদের দোড়াদৌড়িতে পুরো হাসপাতাল জুড়ে প্রচন্ড শোকের আবহ বিরা করছে।

চট্টগ্রামের সকল চিকিৎসকদের চমেক হাসপাতালে এসে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী। রবিবার (৫ জুন) রাত সাড়ে ১২টার দিকে সিভিল সার্জন গণমাধ্যমের মাধ্যমে এই আহ্বান জানান।

সীতাকুণ্ডের কদমরসুল এলাকায় বিএম ডিপো নামের একটি বেসরকারি কন্টেইনার ডিপোতে আগুনের পর বিস্ফোরণ হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে চারজন নিহত হয়েছেন। এতে দগ্ধ হয়েছেন শতাধিক। আর আগুন নেভাতে গিয়ে আহত হয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের কমপক্ষে চারজন কর্মী। এছাড়া এক পুলিশ কনস্টেবলের পা বিচ্ছিন্নসহ অন্তত নয়জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়