কেকের যে ১০ গান মানুষের মুখে মুখে

আগের সংবাদ

রাজধানীতে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নারী পথচারী নিহত

পরের সংবাদ

কুষ্টিয়ায় মাকে বেঁধে কলেজছাত্রীর মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে বিয়ে

প্রকাশিত: জুন ১, ২০২২ , ৪:৩০ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১, ২০২২ , ৪:৩৪ অপরাহ্ণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে মাকে ঘরে বন্দী করে এবং মেয়ের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে বিয়ের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৩১ মে) রাতে উপজেলার পান্টিবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী তরুণী কুষ্টিয়া সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে চলতি বছর স্নাতক সম্পন্ন করেন।

অভিযুক্ত তরুণের নাম তিতাশ (৪০)। পান্টি এলাকার মৃত ইব্রাহিম বিশ্বাসের নাতি তিনি। স্থায়ীভাবে বরিশাল জেলায় বসবাস করেন।

আজ বুধবার (১ জুন) সকালে ভুক্তভোগী তরুণীর মা বলেন, স্থানীয় ওয়াইফাই ব্যবসায়ী রোমান ও লাহোরী সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে তিতাশসহ বেশ কয়েকজনকে নিয়ে পাকা দেয়ালে ঘেরা বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে প্রবেশ করে। সে সময় তাদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র, দা, ডাসা ও দড়ি ছিল। তারা এসেই আমাকে বলে- তোর মেয়েকে তিতাশের সঙ্গে বিয়ে দিতে হবে। নয়তো মেরে ফেলা হবে। বিয়েতে রাজি না হলে ওরা প্রথমে আমাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে মেয়ের কক্ষে নিয়ে যায়। পরে মেয়ের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে কাবিননামায় সই করিয়ে নেয়।

তিনি আরও বলেন, আমরা এ বিয়ে মানি না। কিন্তু তারা থানায় মামলা দায়েরের হুমকি দিয়েছে। খুব ভয়ে আছি আমরা।

তিতাশের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের বিষয়ে ওই কলেজ ছাত্রী বলেন, প্রায় ছয় বছর আগে থেকে তিতাশ আমাকে বিয়ের কথা বলে আসছে। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে এসে বিয়ের কথা বলে। মাকে বেঁধে রেখে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। একপর্যায়ে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেয়। পরে ভয়ে কাবিননামায় সই করেছি। সই করা হলে রাত দেড়টার দিকে ওরা চলে যায়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার এ ঘটনা সম্পর্কে বলেন, পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে গেছে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়