অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা তুলে আনে মানুষের না বলা কাহিনী: তথ্যমন্ত্রী

আগের সংবাদ

পেশাগত কাজে সাংবাদিকদের বাধা দিলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা: ছাত্রলীগ সভাপতি

পরের সংবাদ

আমরা অপরাধ এবং দুর্নীতি নিয়ে বেশি লিখছি: জাফর ইকবাল

প্রকাশিত: মে ৩১, ২০২২ , ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ৩১, ২০২২ , ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

আমরা দেশের অপরাধ এবং দুর্নীতি নিয়ে বেশি লিখছি। যার ফলে দেশের খারাপ বিষয়টি পরিচিতি পাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। সোমবার (৩০ মে) সকাল ১০টায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) কলা ও মানবিক অনুষদের উদ্যোগে ‘সমকালীন সাহিত্য প্রসঙ্গ’ সেমিনারের তিনি এ কথা বলেন।

জাফর ইকবাল বলেন, আমরা দেশের অপরাধ এবং দুর্নীতি নিয়ে বেশি লিখছি। যার ফলে দেশের খারাপ বিষয়টি পরিচিতি পাচ্ছে। আমি দেখার অপেক্ষা করছি আমাদের দেশের সত্যিকারের সাহিত্য, সুন্দর সাহিত্য, ভালো সাহিত্যগুলো পৃথিবীতে, ইউরোপে আমাদের সমৃদ্ধ সাহিত্যকে পরিচিত করবে। যেগুলো আমাদের পছন্দের এবং যা আমরা পরিবর্তন না করি। এখানে আমাদের যে কোনো দোষ নেই তা না। আমরা যে লিখি তার পরিধি ছোট। আমাদের এই লেখার পরিধিতে প্রচুর রোমান্স, দারিদ্র ও কষ্টগুলো উঠে আসে। এছাড়া পৃথিবীতে মানুষের যে নানা ধরনের অভিজ্ঞাতা আছে সেগুলো আসেনা।

তিনি আরও বলেন, আমার দুঃখ হয় যে মুক্তিযুদ্ধের উপর সেরকম কোনো লেখা হয় নাই। মুক্তিযুদ্ধ এদেশের সকল অংশকে স্পর্শ করেছে। যা নিয়ে এদেশের মানুষের কোনো না কোনো স্মৃতি আছে। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে যদি বড় একটি মহাকাব্য লেখা না হয় তা হলে আফসোস থেকে যাবে।

এরআগে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ. এফ. এম আব্দুল মঈন বলেন, আমি পজিটিভের পক্ষে, নেগেটিভের পক্ষে না। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেগেটিভিটিকে ব্রান্ড করছি, পজিটিভিটিকে না। উপাচার্য সমালোচিত হওয়া মানে বিশ্ববিদ্যালয় সমালোচিত হওয়া। সমালোচনাকে বাদ দিয়ে একাডেমিক এক্সারসাইজের মাধ্যমে আমরা নিজেদেরকে আরো উপরে নিয়ে যেতে পারব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান। বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোকাদ্দেস-উল-ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ গোলাম মওলা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ বিদ্যমান। নালন্দার মতো বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের উপমহাদেশেই। এমনকি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশের বিহারগুলোও এক সময় সুদূর চীন পর্যন্ত শিক্ষা বিস্তারে সক্ষম হয়েছিল।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. গোলাম মওলা বলেন, কলা অনুষদের বিষয়গুলো এদেশে অনেকটা হাসি ঠাট্টার বিষয় হয়ে গেছে। বিজ্ঞান আমাদের মারণাস্ত্র উপহার দিয়েছে। কিন্তু মানবিকতার বিষয় ও সাহিত্য আমাদের মানবিক মানুষ হতে সহায়তা করে। কিন্তু এগুলো চর্চা ব্যতীত মানবিক মানুষ হওয়া সম্ভব না।

রি-এইউ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়