সিংহের থাবায় টাইগার কুপোকাত

আগের সংবাদ

গবেষণায় ২৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের নেই এক টাকাও খরচ

পরের সংবাদ

বিজিবি ৩৯৫ কোটি ৭৬ লাখ টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে

প্রকাশিত: মে ২৭, ২০২২ , ২:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ২৭, ২০২২ , ২:১১ অপরাহ্ণ

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র কক্সবাজার রিজিয়ন ৩৯৫ কোটি ৭৬ লাখ ৪৭ হাজার ৫৭৫ পঁচাত্তর টাকা মূল্যের মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে। শুক্রবার (২৭ মে) সকালে রামুতে মাদকদ্রব্য ধ্বংসকরণ অনুষ্ঠান-২০২২ এর আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও কক্সবাজারের সংসদ সদস্যবৃন্দ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মহাপরিচালক, জিওসি ১০ পদাতিক ডিভিশন সহ উচ্চপদস্থ সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিজিবি সদস্যদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা দেন এবং কক্সবাজার রিজিয়নের বিজিবি সদস্যদের মাদক চোরাচালান প্রতিরোধে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করায় তাদের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এরপর তিনি নিজহাতে ক্রিস্টাল মেথ আইস ও ইয়াবা ধ্বংসকরণের মাধ্যমে মাদকদ্রব্য ধ্বংসকরণ অনুষ্ঠানের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে মাদকের বিরুদ্ধে বিজিবি’র অভিযানিক কার্যক্রম নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়। এ সময় কক্সবাজারের রিজিয়ন কমান্ডার বক্তব্য রাখেন।

এরপর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন এবং বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ বক্তব্য প্রদান করেন। বিজিবি মহাপরিচালক তার বক্তব্যে মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন ও সার্বজনীন প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান। সীমান্তে মাদক পাচার রোধে বিজিবি সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত বলে তিনি সকলকে আশ্বস্ত করেন। বিজিবিকে বিশ্বমানের একটি আধুনিক ত্রিমাত্রিক ও যুগোপযোগী বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং একইসঙ্গে প্রতিটি ক্ষেত্রে বিজিবি’র পাশে থেকে সাহস জোগানোর জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

বিগত ১ বছরের পরিত্যক্ত অবস্থায় আটককৃত ৯০,৮০,৪৭৭ পিস ইয়াবা; ২৩.৭৫২ কেজি ক্রিস্টাল মেথ আইস; ৬,৭৬৭ ক্যান বিয়ার; ১,৩৩৯ বোতল মদ; ১৫৪ বোতল ফেন্সিডিল; ২০৬ লিটার বাংলা মদ; ১৭ কেজি গাঁজা; ৪৮,০১৯ পিস বিভিন্ন প্রকার ট্যাবলেট; ১০,৯৮৪ প্যাকেট সিগারেট এবং ০৭ বোতল এ্যামোনিয়াম সালফার ধ্বংস করা হয়েছে। ধ্বংসকৃত মাদকদ্রব্য সমূহের আনুমানিক সিজারমূল্য ৩৯৫ কোটি ৭৬ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৫ টাকা।

এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে আটককৃত ১৯৭৯ জন আসামিসহ ১,২৪,০০,৪৩০ পিস ইয়াবা; ২৭.৪৪৮ কেজি ক্রিস্টাল মেথ আইস; ১,৩০৫ ক্যান বিভিন্ন প্রকার বিয়ার; ৯৮ বোতল বিভিন্ন প্রকার মদ; ১৩৭ বোতল ফেন্সিডিল; ৫৮৬.৮০০ লিটার বাংলা মদ; ২২.৯৯৫ কেজি গাঁজা এবং ৩.১৫০ কেজি আফিম মামলার মাধ্যমে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। হস্তান্তরকৃত মাদকদ্রব্য সমূহের আনুমানিক মূল্য প্রায় ৫১০ কোটি ৯০ লাখ ১৩ হাজার ৫৭২ টাকা।

উল্লেখ্য, মাদকমুক্ত দেশ ও সমাজ গঠনে প্রধানমন্ত্রীর যুগান্তকারী নির্দেশনা ‘মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি’র সফল বাস্তবায়নে বিজিবি’র প্রতিটি সদস্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। এরই ধারাবাহিকতায় বিজিবি কর্তৃক অভিযানিক কার্যক্রম পরিচালনা করে প্রতিনিয়ত উদ্ধার করা হচ্ছে জীবন নাশকারী ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ আইস ও ইয়াবাসহ নানাবিধ মাদকদ্রব্য। মূলত মাদকের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতি বছরই সংশ্লিষ্ট সকলের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে এরূপ মাদক ধ্বংস করা হয়।

রি-ডিডিএম/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়