দেশের ভালো হোক বিএনপি চায় না: আইনমন্ত্রী

আগের সংবাদ

দশ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে পি কে হালদার

পরের সংবাদ

কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই প্রচারে প্রার্থীরা

প্রকাশিত: মে ২৭, ২০২২ , ৪:১৩ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ২৭, ২০২২ , ৪:৩৪ অপরাহ্ণ

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রচার প্রচারণায় নেমে পড়েছেন প্রার্থীরা। শুক্রবার (২৭ মে) জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে ৫ মেয়র প্রার্থীসহ ১৪৭ জন প্রার্থীদের মধ্যে এই প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, প্রার্থীরা টানা ১৩ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের শর্ত মেনে প্রচার চালাতে পারবেন। ১৪ জুন অর্থাৎ নির্বাচনের আগের দিন প্রচার চালানো যাবে না। ১৫ জুন সকাল থেকে ১০৫টি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দেবেন কুমিল্লা নগরবাসী।

পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় ঘেরা পরিবেশে সকাল সাড়ে নয়টা থেকে নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে প্রতীক নিতে আসতে থাকেন প্রার্থীরা। তার আগ থেকেই শুরু হয় প্রতীক বরাদ্দের কাজ।

মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, পূর্বনির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী, জেলা শিল্পকলা একাডেমি থেকে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। প্রথমে ধাপে মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ কাজ শেষে পরের ধাপে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতীক দেওয়া শুরু হয় বলেন জানান এই রিটার্নিং কর্মকর্তা।

আওয়ামী লীগের আরফানুল হক রিফাতকে মেয়র পদে নির্ধারিত ‘নৌকা’ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রাশেদুল ইসলামকে ‘হাতপাখা’ তুলে দেন দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী। অপর প্রার্থীদের মধ্যে সদ্য সাবেক মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু ‘টেবিল ঘড়ি’, মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার ‘ঘোড়া’ ও কুমিল্লা নাগরিক ফোরামের সভাপতি কামরুল আহসান বাবুল ‘হরিণ’ বেছে নিয়েছেন।

এ নির্বাচনে ৫ মেয়র প্রার্থীর বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাসুদ পারভেজ খান ইমরান। তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। ইমরান কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য। প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আফজল খানের ছেলে হিসেবে প্রভাবশালী। তাছাড়া কুমিল্লা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ইমরান।

তবে একটি অনুষ্ঠানে ব্যস্ত থাকায় প্রতীক নিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত সশরীরে উপস্থিত হননি। তার পক্ষে প্রতীক বরাদ্দ নেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্লাহ খোকন ও আবিদুর রহমান জাহাঙ্গীর। ‘নৌকা’ পেয়ে আবিদুর রহমান জাহাঙ্গীরের বলেন, ১৫ জুনের ভোটে মানুষ বেছে নেবে নৌকাকেই। নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক।

পছন্দের প্রতীক ‘টেবিল ঘড়ি’ পেয়ে আনন্দিত গত দুই মেয়াদে নগরীর মেয়রের দায়িত্বে থাকা স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক। তিনি বলেন, আমি পছন্দের প্রতীক পেয়েছি। গত ১০ বছর মেয়রের চেয়ার ছিলাম। মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করেছি। আশা করছি, মানুষ এবারও আমাকে হতাশ করবেন না।

আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার ‘ঘোড়া’ এই প্রতীকে খুশি। ভোটের দিন তার প্রতীকটিই মানুষ বেছে নেবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি। বিশ্বের সব দুঃশাসনের অবসানে ঘোড়ার ব্যবহার ছিলো। এবার কুমিল্লার মানুষ ঘোড়ায় ভোট দিয়ে দুঃশাসনের অবসান ঘটাবে।

কুমিল্লা সিটিতে সর্বশেষ ভোট হয়েছিল ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি দায়িত্ব নেওয়ার পর সে বছরের ১৭ মে প্রথম সভা হয়। তাদের ৫ বছর মেয়াদ চলতি বছরের ১৬ মে পূর্ণ হয়।

সিটি করপোরেশনে মেয়াদপূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে এবার তা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়ে দেয় গত ফেব্রুয়ারিতে দায়িত্ব নেওয়া কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

দুটি পৌরসভা নিয়ে ২০১১ সালের জুলাই মাসে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন গঠিত হওয়ার পর এ পর্যন্ত দুটি নির্বাচন হয়েছে। ১০ বছর আগে প্রথম নির্বাচন নির্দলীয় প্রতীকে হলেও ২০১৭ সালে দলীয় প্রতীকে মেয়র নির্বাচন হয়। দুই নির্বাচনেই ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পরাজিত করে জয়ী হয় বিএনপির প্রার্থী।

নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ২৯ হাজার ৯২০ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার এক লাখ ১৭ হাজার ৯২ জন ও পুরুষ ভোটার এক লাখ ১২ হাজার ৮২৬ জন। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন দুইজন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়