৫১ বছরেও মেলেনি শহীদ পরিবারের স্বীকৃতি

আগের সংবাদ

বাঁশখালীতে হাজারো শিক্ষার্থীর যাতায়াতে ভোগান্তি দূর করুন

পরের সংবাদ

প্রস্তাবিত ‘বড়নগর ইউনিয়ন’ ১২ বছরেও হয়নি বাস্তবায়ন

প্রকাশিত: মে ২৬, ২০২২ , ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২৬, ২০২২ , ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়ন অধিভুক্ত একটি জনবহুল গ্রাম বড়নগর। উপজেলা সদর ও ইউনিয়ন সদর থেকে ১৯ কিলোমিটার ও ৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নদী ও হাওর দ্বারা বিচ্ছিন্ন প্রাকৃতিক ও ভৌগোলিকভাবে অবহেলা ও নিপীড়নের শিকার পশ্চিম সীমান্তবর্তী একটি জনপদ বড়নগর। জন্মনিবন্ধন, নাগরিক সনদ, প্রত্যয়নপত্র, ট্রেড লাইসেন্স ও ডিজিটাল তথ্য অধিকার সেবা পেতে জনসাধারণকে দিতে হচ্ছে অতিরিক্ত অর্থ, সময় ও শ্রম। ১নং চাতলপাড় ইউনিয়নকে বিভক্ত করে ৫টি মৌজা নিয়ে বড়নগর ইউনিয়ন গঠনের জন্য ২০০৯ সালের ৪ অক্টোবর স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় বরাবর চিঠি প্রেরণ করা হয়। পরিপ্রেক্ষিতে, ২০১২ সালে গণবিজ্ঞপ্তি, ২০১৪ সালে ওয়ার্ড বণ্টন ও ম্যাপিংসহ মাঠ পর্যায়ের সব কার্যাদি সম্পন্ন হয়। কিন্তু ২০২২ সালেও সফলতার মুখ দেখতে পারেনি বড়নগর ইউনিয়ন। ১৯৭১ সালে পূর্ব বাংলার বিভাগ ছিল ৪টি, জেলা ছিল ১৯টি। ১৯৯৩ সালে বরিশাল, ১৯৯৮ সিলেট, ২০১০ রংপুর, ২০১৫ সালে ময়মনসিংহ গঠিত হয়েছে। যেখানে সর্বোচ্চ ১২ বছর সময় ব্যবধানে একটি বিভাগ গঠন হয়েছে এবং বর্তমানে জেলার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৪-তে, সেখানে একটি ইউনিয়ন (বড়নগর) বাস্তবায়ন হয়নি ১২ বছরেরও বেশি সময়ে। বিলম্বিত হচ্ছে বড়নগর ইউনিয়ন গেজেট পাসে। কেটে যাচ্ছে বছরের পর বছর, উপনির্বাচন থেকে জাতীয় নির্বাচন, ক্ষমতার অদলবদল, রাজনৈতিক পটপরিবর্তন সবকিছুই যথারীতি চললেও নিশ্চল হয়ে পড়েছে বড়নগর ইউনিয়ন। তথাপি এই দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় দেশবিদেশ অবস্থানরত জনসাধারণের মনে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে নানা প্রশ্ন, নানান জিজ্ঞাসা, ভেসে উঠেছে ব্যগ্রতা, আর্তনাদ, আনন্দ ও হতাশার এক মিশ্র মৌন প্রতিবাদ! আর্থসামাজিক, প্রশাসনিক, রাজনৈতিক সুফলভোগে স্থানীয় সরকার বিকেন্দ্রীকরণ যুগোপযোগী দাবি হয়ে দাঁড়িয়েছে। অতএব, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।’

রতন দেবনাথ : নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়