আলুর পরোটা খেয়েছেন, এবার খান আম পরোটা!

আগের সংবাদ

ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে শ্যামগঞ্জে মানববন্ধন

পরের সংবাদ

৯৯৯ এ কল করে প্রাণে বাঁচলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও অভিনেতারা

প্রকাশিত: মে ২৫, ২০২২ , ২:০৮ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ২৫, ২০২২ , ২:১২ অপরাহ্ণ

একাডেমিতে আসার পথে ডাকাতদলের আক্রমণের শিকার হয়েছেন নেত্রকোণার দূর্গাপুর উপজেলার বিরিশিরি কালচারাল একাডেমির পরিচালক সুজন হাজংসহ চলচ্চিত্র নির্মাতা ও অভিনেতারা। মঙ্গলবার (২৪ মে) রাত আড়াইটার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ হাইওয়ে রোডের গাজীপুর সাফারি পার্কের ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

তারা ব্যক্তিগত পরিবহনে ঢাকা থেকে আসার পথে অস্ত্রধারী ডাকাতরা প্রথমে তাদের গাড়িতে একটা লোহার রড ছুঁড়ে মারলে চালক গাড়ি থামালে আচমকা ডাকাতদল তাদের আক্রমণ করে। ডাকাতদলের একজন ধারালো রামদা দিয়ে সুজন হাজংকে কোপ দিলে তিনি কৌশলে রক্ষা পেয়ে দৌঁড় দেন। তার সঙ্গে থাকা সোহেল রানা বয়াতি ও বাপ্পী রাজসহ চালকও দৌঁড়ে পালান। তারপরও ডাকাতদল তাদের পিছু ধাওয়া করে। দৌড়ানো অবস্থায়ই সোহেল রানা বুদ্ধি খাটিয়ে ৯৯৯-এ ফোন করেন। পরে দ্রুত সময়ের মধ্যে ৩ জন এসআই তিনটি টহলের গাড়ি নিয়ে ডাকাতদের পাল্টা ধাওয়া করে তাদের উদ্ধার করেন।

পরে পুলিশের পাহারায় তারা একটি স্থানীয় হোটেলে রাত কাটান। তবে ডাকাতদল সোহেল রানা বয়াতির দুটি নির্মাণাধীন চলচ্চিত্রের পান্ডুলিপিসহ মূল্যবান কাগজপত্রের ব্যাগটি নিয়ে যায়।
গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এসআই মোসাব্বির, এসআই উৎপল ও এএসআই মনির হুসাইনসহ অন্য সদস্যরা তাদের উদ্ধার করেন।

এ ব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটনের সদর থানার পুলিশের উপপুলিশ পরিদর্শক মনির হুসাইন জানান, তারা ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে সুজন হাজংসহ অন্যদের উদ্ধার করেন। পরে আক্রমণকারী ডাকাতদলকে ধরতে ভাওয়াল জাতীয় উদ্দ্যানের গহীন জঙ্গলের ভিতর প্রায় ২ কিলোমিটার ধাওয়া করেন তারা।

সুজন হাজং জানান, তারা ঘটনাস্থল থেকে পুলিশের সহায়তায় উদ্ধারের পর স্থানীয় একটি হোটেলে অবস্থান করে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে রওয়ানা হয়ে বিরিশিরি কালচারাল একাডেমিতে পৌঁছেন।

টিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়