বাড়ছে সম্ভাবনা, তবুও শঙ্কা!

আগের সংবাদ

মারিউপলে ২০০ মরদেহ উদ্ধার

পরের সংবাদ

হার্দিক-মিলারের শতরানে আইপিএলের ফাইনালে গুজরাট

প্রকাশিত: মে ২৫, ২০২২ , ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২৫, ২০২২ , ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ

শেষ তিন বলে তিনটি ছয় মেরে আইপিএলের ফাইনালে গুজরাট টাইটান্স। আমদাবাদের মাঠে ফাইনাল খেলবে গুজরাট। ডেভিড মিলার এবং হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাটেই ফাইনালে উঠল তারা। ৭ উইকেটে রাজস্থান রয়্যালসকে হারিয়ে দিলেন হার্দিক পান্ডিয়ারা।

টস জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন হার্দিক পান্ডিয়া। শুরুতে যশস্বী জয়সবালকে ফিরিয়ে দিলেও সেই ধাক্কা সামলে দেন সঞ্জু স্যামসন এবং জস বাটলার। ৬৮ রানের জুটি গড়েন তারা। বড় রানের ভিত গড়ে দেয় তাদের ইনিংসটাই। স্যামসন ৪৭ রান করে ফিরে যান। দেবদত্ত পাড়িক্কল করেন ২৮ রান। বাকি রান তোলার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন জস বাটলার। তাকে দ্রুত না ফেরাতে পারলে যে কী হতে পারে, তা দেখিয়ে দিলেন ইডেনে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

শিমরন হেটমায়ার, রিয়ান পরাগরা দর্শক আর মঞ্চ মাতালেন বাটলার। ৫৬ বলে ৮৯ রান করে রান আউট হন ইংরেজ ব্যাটার। প্রথম কোয়ালিফায়ারে ১৮৮ রান তোলে রাজস্থান। ঋদ্ধিমান সাহাদের জিততে হলে করতে হত ১৮৯ রান।

রান তাড়া করতে নেমে শূন্য রানে ফিরে যান ঋদ্ধি। তার ঘরের মাঠের দর্শকদের ব্যাট হাতে নিরাশ করেন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে ম্যাথু ওয়েড এবং শুভমন গিল ৭২ রানের জুটি গড়েন। শুভমন ব্যাট করার ইডেন থেকে ‘কেকেআর, কেকেআর’ আওয়াজও শোনা যায়। গত মৌসুম পর্যন্ত কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলা শুভমনের কাছেও ইডেন যে ঘরের মাঠই ছিল এক সময়। ২১ বলে ৩৫ রান করেন তিনি। ওয়েডও ৩৫ রান করে আউট হন।

তখনও ম্যাচ জয়ের থেকে অনেকটাই দূরে গুজরাট। কিন্তু হার্দিক পান্ডিয়া এবং ডেভিড মিলারের জুটি জয় এনে দিল তাদের। ৬১ বলে ১০৬ রানের জুটি গড়েন তারা। হার্দিক করলেন ২৭ বলে ৪০ রান। মিলার ৩৮ বলে ৬৮ রান করেন। তাদের অপরাজিত জুটিই জয় এনে দিল। শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। মিলার একাই তিনটি ছয় মেরে ম্যাচ জিতিয়ে দেন।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়