নিউজ ফ্ল্যাশ

আগের সংবাদ

ই-কমার্স ব্যবসায় প্রতারণা বন্ধে হাইকোর্টের একগুচ্ছ নির্দেশনা

পরের সংবাদ

ব্যাট হাতে লঙ্কার বোলারদের ভয় ধরালেন মুশফিক

প্রকাশিত: মে ২৩, ২০২২ , ৫:০৪ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ২৩, ২০২২ , ৫:০৪ অপরাহ্ণ

ঢাকা টেস্টে সোমবার(২৩ মে) ব্যাট হাতে শ্রীলঙ্কার বোলারদের পাত্তাই দিলনে না মুশফিকুর রহিম। মিরপুরে লঙ্কার বোলারদের ভয় ধরালেন তিনি। এমনকি দ্বিতীয় টেস্টে সতীর্থদের আসা-যাওয়ার মিছিলে ঘুরে দাড়িয়ে সেঞ্চুরি করেন মুশফিক। এটি টেস্ট ক্যারিয়ারে তার নবম শতক। এর আগে চট্টগ্রাম টেস্টেও সেঞ্চুরি করেছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

সম্প্রতি মুশফিকের ব্যাটিং নিয়ে ক্রিকেট পাড়ায় বেশ গুঞ্জন চলছিল। অনেকে বলেছে মিস্টার ডিপেন্ডেবল ব্যাটিং ভুলে গেছে। আবার অনেকে বলেছে তিনি ব্যাটিং ভুলে গেছে। যাইহোক গুরুত্বপূর্ন সময় নিজের জাত চেনাতে ভুল করেনি মুশফিক। এমনকি তিনি খাদের কিনারায় দাড়িয়ে ঢাকা টেস্টে লিটনের সঙ্গে ২১৯ রানের জুটি গড়েন।

এর আগে ২০১৩ সালে সাদা পোশাকে প্রথম ডাবল সঞ্চেুরির কৃতত্বিও গড়েছেন মুশফিক। সেসময় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গলে ২০০ রান করছেলিনে। এরপর ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুর ২১৯ রানে অপরাজতি ছিলেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। যা টেস্টে এখনও বাংলাদশেরে ব্যক্তিগত সবোর্চ্চ রান। এরপর ২০২০ সালে মিপুরে ২০৩ রানের অপরাজতি ইনংিস খেলেন। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে মুশফিকই এক মাত্র তিনটি ডাবল সেঞ্চুরির মালিক।

এদিকে সোমবার(২৩ মে) শ্রীলঙ্কার পেস বোলারদের সামনে কোমড় সোজা করে দাড়াতে পারেননি তামিম,সাকিব ও জয়। ৬.৫ ওভারে দলীয় ২৪ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। এরপর ছন্দে থাকা লিটন দাসকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন মুশফিকুর রহিম। প্রথম ঘণ্টার বিপর্যয় সামলে দ্বিতীয় ঘণ্টায় ভালো শুরু করেন তারা দুজন। দেখে শুনে বেশ ঠান্ডা মাথায় ব্যাট চালিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন লিটন-মুশফিক। সেই সঙ্গে বিপর্যয় সামলে টেস্ট ক্যারিয়ারে ১৩ তম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন। তার সঙ্গী মুশফিক টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৬ তম হাফসেঞ্চুরি করেন। এরপর লিটন পেয়ে যান ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি। তিনি খাদের কিনারায় দাড়িয়ে ব্যাট হাতে দাপট দেখিয়েছেন। হাফসেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন ৯৬ বলে আর সেঞ্চুরিতে পৌঁছতে খেলেছেন ১৪৯ বল। আর ১৪টি চার হাকিয়েছেন।

এদিকে সোমবার মিরপুরে টস জিতে আগে ব্যাট হাতে শুরুটা ভালো করতে পারেনি টাইগাররা। ৬.৫ ওভারে দলীয় ২৪ রান তুলতেই ৫ উইকেট খুইয়ে চাপে পড়ে টাইগাররা। দলের বিপর্যয়ে হাল ধরতে পারলেন না সাকিব আল হাসান। তিনি রিভিউ নিয়ে বাঁচতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কোন লাভ হয়নি। শূন্য রানে আউট হন সাকিব। এমনকি নাজমুল হোসেন শান্তও শ্রীলঙ্কাকে উইকেট উপহার দিয়েছেন। পেসার রাজিথার ভেতরে ঢোকানো বলে বোল্ড হন শান্ত। তিনি ২১ বলে ৮ রান করেন করেন।

এর আগে লঙ্কান পেসার কাশুন রাজিথার দ্বিতীয় বলে বোল্ড ডানহাতি ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান জয়। এর পর দলীয় ৬রানে আউট হন তামিম ইকবাল। তিনি রানের খাতা খোলার আগেই আউট হন। এমনকি মুমিনুলও বিপদে দলের হাল ধরতে পারেনি। তিনি ৯ বলে ৯ রান করে আউট হন। মিরপুর টেস্টে মুমিনুল ক্রিজে এসে প্রথম বলেই পেয়েছিলেন বাউন্ডারি। পরের ওভারে আরেকটি চোখ ধাঁধানো কভার ড্রাইভ। রান খরায় থাকা মুমিনুল ছন্দে ফেরার আভাস দিচ্ছিলেন। কিন্তু উইকেট কামড়ে লড়াই করতে পারেননি টাইগার টেস্ট অধিনায়ক। পেসার আশিথা ফার্নান্দোর বল খেলা, না খেলা নিয়ে দ্বিধায় ব্যাট চালান মুমিনুল। ক্যাচ দিয়ে ফিরেন সাজঘরে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়