আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর প্রয়াণ

আগের সংবাদ

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী আমার বন্ধু

পরের সংবাদ

২১ মে বিশ্ব মেডিটেশন দিবস : ভালো মানুষ ভালো দেশ স্বর্গভূমি বাংলাদেশ

রাসেল আহমদ

লেখক ও সাংবাদিক

প্রকাশিত: মে ২১, ২০২২ , ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২১, ২০২২ , ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

‘আমার মতে জগৎটাতে ভালোটারই প্রাধান্য
মন্দ যদি তিন চল্লিশ, ভালোর সংখ্যা সাতান্ন’
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই বাণী বেশ ভালোভাবেই উপলব্ধি করেন ধ্যানীরা। অন্তত নিজের জীবনে তো বটেই! নিয়মিত মেডিটেশন চর্চাকারীরা বোঝেন মেডিটেশন বা ধ্যানচর্চা একজন মানুষের ভেতরে কীভাবে শুভ শক্তি বা ভালো বৈশিষ্ট্যগুলোকে জাগিয়ে তোলে। নিয়মিত মেডিটেশন চর্চাকারীর মনের ভেতর ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে আত্মবিশ্বাস, সাহস, সমমর্মিতা, পরার্থপরতা, দেশপ্রেমসহ যাবতীয় মানবিক গুণাবলি। পাশাপাশি এ চর্চা ‘মন্দ’ জিনিসগুলোকে মুছে ফেলতে সাহায্য করে। এই মন্দের ভেতর রয়েছে রাগ, ক্ষোভ, ঘৃণা, ঈর্ষা, লোভ, লালসা, অহম, হীনম্মন্যতা, ভয়, দুশ্চিন্তা, নেতিচিন্তা, অবিশ্বাস আর সংশয় ইত্যাদি সব আত্মবিধ্বংসী উপাদান। সব মিলিয়ে মন্দ মুছে মন হয় ময়লামুক্ত।
মেডিটেশন হচ্ছে সেই কৌশল বা প্রক্রিয়া, যা এ দেশের ঐতিহ্যের সঙ্গে মিশে আছে হাজার বছর ধরে। সর্বস্তরে এ চর্চা আবারো ছড়িয়ে গেলে মানুষের ভেতরের ভালো সত্তাটি অধিক সক্রিয় হয়ে উঠবে। জগতে ভালোর ভাগই বেশি। আর প্রত্যেক মানুষের ভেতর ভালো সত্তাটির অংশই বেশি থাকে। কিন্তু পারিপার্শ্বিক নানা চাপে অনেক সময় মন্দ সত্তাটি অধিক শক্তিমান হয়ে ভালো সত্তাকে চেপে ধরে। মেডিটেশন তখন সেই ভালো সত্তাটিকে বাঁচিয়ে তোলে।
২০২১ সাল থেকে বাংলাদেশ ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আনুষ্ঠানিকভাবে পালিত হচ্ছে দিনটি। দিবস পালনের বিষয়টি আসলে প্রতীকী। যখন কোনো সমাজ বা জনগোষ্ঠীকে কোনো বিষয়ে সচেতন করার প্রয়োজন হয়, গুরুত্ব ও তাৎপর্য নিয়ে কথা বলার প্রেক্ষাপট হয়; তখন একটি দিনকে নির্দিষ্ট করে সে দেশের সরকার সংগঠন বা জাতিসংঘ এ ধরনের উদ্যোগ নিয়ে থাকে। সেভাবেই উদ্ভব হয় বিশ্ব মেডিটেশন দিবসের।
বছর পাঁচেক আগে উইল উইলিয়ামস নামে এক ব্রিটিশ মেডিটেশন প্রশিক্ষক প্রথম এ দিবসটি পালনের উদ্যোগ নেন। উইল উইলিয়ামস অনিন্দ্রার রোগী ছিলেন। মেডিটেশনের মাধ্যমে নিরাময়ের পর তিনি এ সম্পর্কে আরো উৎসাহী হয়ে ওঠেন। গভীর ধারণা লাভের জন্য তিনি ভারতে এসে সেখানকার দুজন গুরুর সান্নিধ্য লাভ করেন। সেই সঙ্গে চীনা, মিসরীয় ও অ্যামাজন অঞ্চলের ধ্যান সম্পর্কে পাঠ নেন। এক পর্যায়ে ‘বিজা’ মেডিটেশন নামে একটি ধ্যান পদ্ধতির প্রবর্তন করেন। যার মূল সুর উৎসারিত হয়েছে প্রাচ্যধারার ধ্যান পদ্ধতি থেকে।
এদিকে কোয়ান্টাম মেথড গত তিন দশক ধরে বাংলা ভাষায় সবচেয়ে প্রচলিত ও জনপ্রিয় মেডিটেশন পদ্ধতি। চার দিনের মেডিটেশন কোর্স সম্পন্ন করে এ পর্যন্ত লক্ষাধিক মানুষ সরাসরি এবং অ্যাপ, বই, উন্মুক্ত ফ্রি প্রোগ্রাম ও কাউন্সিলিংয়ের মাধ্যমে পরোক্ষভাবে উপকৃত হয়েছেন আরো লাখো মানুষ। সেজন্যই ২০২১ সালে কোয়ান্টাম উদ্যোগ নেয় বিশ্ব মেডিটেশন দিবস উদযাপনের। ক্রমে দিবসটি হয়ে উঠছে উৎসবমুখর।
এ বছরও দেশ-বিদেশে ব্যাপক আয়োজনে পালিত হচ্ছে দিনটি। আমাদের জাতিগত নতুন মনছবি- ‘ভালো মানুষ ভালো দেশ স্বর্গভূমি বাংলাদেশ’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে দিবসটি পালনে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন কোয়ান্টাম। দিবসটি উপলক্ষে শুধু একদিনের আয়োজন নয়, মাসব্যাপী আয়োজিত হচ্ছে শিশু-কিশোরসহ সব বয়সের মানুষের জন্য রচনা, চিত্রাঙ্কনসহ নানা প্রতিযোগিতার।
যখন একটি দেশের জনসংখ্যার বড় অংশের ভেতরের ‘ভালো মানুষ’টি সক্রিয় হয়ে ওঠে, সজাগ হয়ে ওঠে; তখনই দেশটি হয়ে ওঠে ভালো দেশ। আমাদের স্বপ্ন- প্রিয় জন্মভূমি বাংলাদেশকে ভালো মানুষের ভালো দেশে রূপান্তর করা, স্বর্গভূমিতে রূপান্তর করা। সেজন্যই প্রয়োজন ভালো মানুষ। আর প্রতিটি মানুষকে ভালো তথা শুদ্ধাচারী মানুষে রূপান্তরের জন্যই প্রয়োজন মেডিটেশনের চর্চা। মানুষ ভালো হলে, ভালো মানুষের সংখ্যা বেড়ে গেলে আমাদের জাতিগত মনছবি ধাপে ধাপে তার স্বপ্নের দিকেই এগিয়ে যাবে। ২১ মে উৎসবমুখর হয়ে উঠুক এবারের মেডিটেশন দিবস।

রাসেল আহমদ : লেখক ও সাংবাদিক।
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়