মূল্যস্ফীতি ১২ শতাংশ হতে পারে: ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

আগের সংবাদ

নির্মাণের এক মাসেই ভেঙে গেছে বক্স কালভার্ট

পরের সংবাদ

শ্রীলঙ্কা ৩৯৭ রানে অলআউট, নাঈমের ৬ ইউকেট

প্রকাশিত: মে ১৬, ২০২২ , ৪:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ১৬, ২০২২ , ৪:০৮ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের বিপক্ষে সোমবার (১৬মে) চট্টগ্রাম টেস্টে চ্যালেঞ্জিং স্কোর পেল দিমুথ করুনারত্নে বাহিনী। নিজেদের প্রথম ইনিংসে সব উইকেট হারিয়ে ৩৯৭ রান তুলেছে লঙ্কানরা। তবে নাঈম ম্যাথিউজকে ডাবল সেঞ্চুরি করতে দেয়নি। লঙ্কান এই ব্যাটসম্যান ১৯৯ রানে আউট হন। এখন কিছুক্ষণ পর মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সাদা পোশাকে মুমিনুল বাহিনী কেমন ব্যাটিং করবে তা দেখার অপেক্ষায় আছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। তামিম,সাকিব ও মুশফিকরা ঠাণ্ডা মাথায় ব্যাট চালাতে সক্ষম হলেই রান তোলা সম্ভব। কারণ ব্যাটিং-স্বর্গ হিসেবে পরিচিতি আছে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের। এমনকি গত ১০ বছরের রেকর্ড বিবেচনায় নিলে এশিয়ায় সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড় এই মাঠেরই। তাই টস জিতলে এখানে যে কেউ আগে ব্যাটিং লুফে নিতে চাইবে। তাছাড়া চট্টগ্রামে উইকেট শিকার করা বেশ কঠিন। তবে এখানে একটু ভালো লেন্থে বল করলে বোলারদের জন্য উইকেট শিকার করা সম্ভব। এমটাই বল হাতে করে দেখালেন সাকিব-নাঈম।

এদিকে চট্টগ্রামে দ্বিতীয় দিন বাংলাদেশের বোলারদের বিপক্ষে বেশ দাপটে ব্যাট চালাচ্ছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও দিনেশ চন্ডিমাল। তারা দুজন বেশ ঠাণ্ডা মাথায় খেলে রানের চাকা সচল রাখেন। তবে দ্বিতীয় দিনও বল হাতে চমক দেখাল নাঈম হাসান। এদিন তিনি লঙ্কানদের আরো ২ উইকেট শিকার করেন। ম্যাথিউসের সঙ্গে জুটি গড়ে সাকিব-তাইজুলদের বেশ ভোগাচ্ছিলেন চান্দিমাল। তিনি হাফসেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছিলেন। কিন্তু নাঈমের বলে কুপোকাত হন চান্দিমাল। এলবিডব্লিউ হয়েও রিবিউ নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা কোন কাজে আসেনি। ২ চার ও ৩ ছক্কায় ১৪৮ বলে ৬৬ রান করেন চান্দিমাল। তিনি আউট হলে ভেঙে যায় ১৩৬ রানের জুটি। এরপর নাঈম বোল্ড করে নিরশানকে সাজঘরে পাঠায়। তিনি ৬ রান করেন। ফলে স্বস্তি নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় মুমিনুল বাহিনী। এরপর ফিরেই উইকেটের দেখা পায় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। সাকিবের দ্বিতীয় বলে বোল্ড হন রমেশ মেন্ডিস। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের করা বলে একটু বাকা হয়ে পুল করতে চেয়েছিলেন মেন্ডিস। কিন্তু বল নিচু হয়ে আসায় ব্যাট মিস করে উইকেট ভেঙে দেয়। ৮ বলে ১ রান করেন রমেশ। সাকিব পরের বলেই লাসিথ এম্বুলবেদনিয়াকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে পরাস্ত করেন। টাইগারদের জোরালো আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়েছিলেন এম্বুলদেনিয়া। তাতে কোন লাভ হয়নি। শূন্য রানে আউট হন তিনি। এ নিয়ে সাকিব ৩ উইকেট শিকার করেন।

চট্টগ্রামে সোমবার প্রথম সেশনে বল হাতে লঙ্কানদের কোন উইকেট শিকার করতে পারেনি সাকিব-নাঈমরা। সেই সুযোগ লুফে নিয়ে শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও দিনেশ চন্ডিমাল রান তুলে। ৭৫ রানের জুটি নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিলেন তারা দুজন। প্রথম ঘণ্টা না পেরোতেই জুটি তিন অঙ্কের ঘর পার করে। ২০৭ বলে দুজনের জুটি ১০০ স্পর্শ করে। যা হোক এখন বড় সংগ্রহের দিকে এগোচ্ছেন ম্যাথিউস ও চন্ডিমাল। তারা রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে খেলছেন, সেই সঙ্গে বাউন্ডারিও হাকায়।

এদিকে চট্টগ্রামে সোমবার দিনের চতুর্থ ওভারে ম্যাথিউসকে আউটের সুযোগ পেয়েছিল টাইগাররা। খালেদের দুর্দান্ত ডেলিভারি তার ব্যাট ছুঁয়ে যায় লিটনের হাতে। তবে কেউই বুঝতে পারেননি এটি। আবেদনও করেননি কোনো ফিল্ডার। ১১৯ রানে বেঁচে যান ম্যাথুজ।

এছাড়া রবিবার(১৫মে) সফরকারীদের ৪ উইকেট শিকার করেও ব্যর্থতায় প্রথম দিন শেষ করে মুমিনুল বাহিনী। আর বেশ সাবলীল ভঙ্গিমায় ব্যাট চালিয়ে রান তুলে দিন পার করে লঙ্কান ব্যাটসমানরা।

এছাড়া চার টেস্ট পর দলে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। করোনা মুক্ত হয়ে ফেরায় তার ফিটনেস নিয়ে কিছুটা সংশয় ছিল। কিন্তু তিনি মাঠে ফিরেই বল হাতে দেখিয়েছেন ভেল্কি। প্রথম দিন লঙ্কানদের চাপে রাখতে উইকেট তুলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বিশ^সেরা অলরাউন্ডার। তিনি ১৯ ওভার হাত ঘুরিয়ে করে ২৭ রান খরচায় ১ উইকেট নিয়েছেন। আর তাইজুল ৩১ ওভার বোলিং করে ৭৩ রানের বিনিময়ে শিকার করেন ১ উইকেট। তবে নাঈম হাসান শুরতে উইকেট শিকার করতে সক্ষম হলেও পরে ব্যর্থ হন। তিনি ১৬ ওভার বল করে ৬৭ রান খরচায় দুটি উইকেট নেন। তাছাড়া সাদা পোশাকে প্রথম দিন নিজের ১১তম ওভারে প্রথম উইকেটের দেখা পান সাকিব। তার ঘূর্ণিতে কুপোকাত হন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। বিশ^সেরা অলরাউন্ডারের বলে মাহমুদুল হাসান জয় দুর্দান্ত ক্যাচ ধরেন। সাকিবের বল ধনাঞ্জয়া ব্যাট ছুঁয়ে প্যাডে লেগে প্রথম স্লিপের দিকে উপরে উঠে যায়। আর সঙ্গে সঙ্গে জয় ঝাঁপিয়ে পড়ে তালুবন্দি করেন, কিন্তু আম্পায়ার প্রথমে আউট দেননি। ফলে বিশ^সেরা অলরাউন্ডার রিভিউ নেন। সেই সিদ্ধান্ত মুমিনুলদের পক্ষে আসে। ধনাঞ্জয়া ২৭ বলে ৬ রান করে আউট হন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়