শেরপুরে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ২

আগের সংবাদ

ট্রেকিংয়ে সারা, দুর্গম পাহাড়ে তাবু খাঁটিয়ে রান্না!

পরের সংবাদ

তাড়াইলে ভোজ্যতেলের বাজার নিয়ন্ত্রণে নেই প্রশাসনের তদারকি

প্রকাশিত: মে ১৩, ২০২২ , ১২:৩২ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ১৩, ২০২২ , ৫:৩৭ অপরাহ্ণ

কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলা সদরসহ আশপাশের বাজারগুলোতে ভোজ্য তেলের বাজার নিয়ন্ত্রণে নেই প্রশাসনের কোনো রকম তদারকি। লিটারে বিক্রিয় না করে ২১০ টাকা কেজিতে বিক্রয় হচ্ছে খোলা ভোজ্য তেল। কোনো কোনো দোকানে এক দুই পিস সয়াবিন তেলের বোতল থাকলেও গায়ের মূল্য থেকে বেশি দামে বিক্রি ব্যবসায়ীরা বিক্রি করছে বলে দাবি ভোক্তাদের।

জানা গেছে, তাড়াইল উপজেলা সদরসহ আশপাশের বাজার থেকে বোতলজাত সয়াবিন তেল উধাও হয়ে গেছে। সরকার নির্ধারিত ১৯৮ টাকা লিটারে মিলছে না সয়াবিন তেল। শুধু খোলা সয়াবিন তেল পাওয়া যাচ্ছে তাও আবার ২১০ টাকা কেজি দরে। প্রশাসনের চোখের সামনে এ অবস্থা চললেও প্রসাশন নীরব ভূমিকায় রয়েছে । সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষেরা পড়েছে চরম ভোগান্তিতে।

উপজেলা সদর তাড়াইল বাজারের মনোহারি ব্যবসায়ী আনিছুর রহমানসহ কয়েক জনের সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, আমরা পাইকারিভাবে সয়াবিন তেল কিনছি ২০২ টাকা কেজি দরে। আমরা কেমনে সরকার নির্ধারিত দামে তেল বিক্রি করব। বাজারের কোথাও কোনো ছোট, বড় দোকানে বোতলজাত সয়াবিন তেল নেই কারণ কি জানতে চাইলে দোকানিরা বলেন, আমাদেরকে কোনো কোম্পানি বোতলজাত সয়াবিন তেল সরবরাহ করে না। তাই আমরাও বিক্রি করতে পারছি না।

শুক্রবার (১৩ মে) দুপুরে উপজেলা সদর তাড়াইল বাজারে সয়াবিন তেল কিনতে আসা মো.কামরুল ইসলামসহ কয়েকজন বলেন, যে কোনো বস্তু রান্না করতে প্রয়োজন হয় সয়াবিন তেল। আমরা খেটে খাওয়া মানুষ আমাদের আয়ের উৎস সামান্য। বেশি দামে সয়াবিন তেল ক্রয় করাটা সত্যিই আমাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। ভুক্তভোগীরা বলেন, ভোজ্য তেলের বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা শারমিন বলেন, ভোজ্য তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে শিগগিরই জাতীয় ভোক্তা অধিকার আইনে বাজার তদারকি করব।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়