বাজেটে রাজস্ব আয়ের বাস্তবতা ও করণীয়

আগের সংবাদ

পটিয়া আদর্শ স্কুল সরকারি হবে কখন?

পরের সংবাদ

টিজিং প্রতিরোধহীন হয়ে যাচ্ছে!

প্রকাশিত: মে ১২, ২০২২ , ১২:৫৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ১২, ২০২২ , ১২:৫৯ পূর্বাহ্ণ

সম্প্রতি ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের মাওনা ফ্লাইওভার ক্রস করছিলাম। দেখলাম মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছেন একজন এবং তার পেছনে একজন নারী। খুব তড়িঘড়ি করে চালানোর চেষ্টা করছেন চালক। তাদের দুজনের সম্পর্ক দেখে মনে হচ্ছিল তারা স্বামী-স্ত্রী। তড়িঘড়ি করে মোটরসাইকেল চালানোর কারণ ছিল তাদের পিছু নেয়া আরো কয়েকটি মোটরসাইকেল এবং সব মোটরসাইকেলেই কিশোর এবং কিশোর থেকে যুবক হওয়া কয়েকজন সমানে শিষ দিয়ে, অঙ্গভঙ্গি করে টিজ করে যাচ্ছে! সবাই মেয়েটিকে দেখে সামনের মোটরসাইকেলটির পিছু নিয়েছে। ফ্লাইওভার পুরো ফাঁকা থাকার কারণে এই টিজিং যেন উৎসবে রূপদান করতে চাইছে তারা। দেখার পর আমি দ্রুত গাড়ি চালিয়ে এদের সমানে আসার সঙ্গে সঙ্গে ওরা ওই মোটরসাইকেলের পিছু ছেড়ে দেয়! কিন্তু যে নারী ছিলেন তাকে খুবই বিমর্ষ মনে হলো। এমন ঘটনা অনেক হচ্ছে প্রতিনিয়ত। কিশোর গ্যাংয়ের মতো অপরাধ বেড়ে যাওয়ার একটি বড় ফলাফল এই ঘটনাটি।
প্রতিদিন প্রতিটি রাস্তায় এমন দ্রুতগতির মোটরসাইকেল দ্বারা টিজিংয়ের শিকার হয় অনেক মানুষ। একা কোনো মোটরসাইকেলে নারীদের যেতে দেখলেই কুকুরের মতো পিছু নেয় এই বখাটে ছেলেরা। বিশেষ করে মানুষ সমাগম হয় এমন পর্যটন অঞ্চলগুলোতে এই দৌরাত্ম্য আরো অনেক বেশি! প্রশাসনের কী করণীয় তা ভাবতে হবে খুব দ্রুত। একজন মানুষ এভাবে নিরাপত্তাহীনতায় চলতে পারে না। যারাই এমন অপরাধের সঙ্গে জড়িত হবে তাদেরই আইনের আওতায় আনতে হবে। কোনো দলের রাজনৈতিক কর্মী যদি এমন আচরণ করে তবে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে আর এজন্য একটি ফলোআপ টিম প্রতিটি রাজনৈতিক দলেরই থাকা প্রয়োজন। সাধারণত ক্ষমতাকে অপব্যবহার করেই এমন টিজিংয়ের সঙ্গে যুক্ত হয় বখাটে তরুণরা, কিশোররা। এ থেকে পরিত্রাণের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপের কোনো বিকল্প নেই। এক জীবনে কারো কোনো বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর তা আর স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে আসা সম্ভব নয়। নারীদের ক্ষেত্রে এমন দুঃসাহসিকতা অনেক বেশি। সুতরাং এ বিষয়গুলো আরো গুরুত্বের সঙ্গে দেখার অনুরোধ করছি। যেহেতু কোনো সময় ৯৯৯-এ কল করাও অসম্ভব হয়ে যায় সুতরাং সব ধরনের পর্যটনকেন্দ্র এবং রাস্তাগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন সময়ের দাবি। এমন অপরাধের শাস্তি হতেই হবে নইলে একসময় ঘরে এসে হানা দেবে এই বখে যাওয়া তরুণরা!

সাঈদ চৌধুরী : শ্রীপুর, গাজীপুর
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়