ব্যর্থ জাদেজা, ধোনিকেই ফিরিয়ে দিলেন চেন্নাইয়ের অধিনায়কত্ব

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

সড়কপথে স্বস্তিতে ঘরে ফিরছে মানুষ

প্রকাশিত: মে ১, ২০২২ , ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ১, ২০২২ , ১১:১১ পূর্বাহ্ণ

ঈদযাত্রায় সড়কপথে যাত্রীরা বেশ স্বস্তিতেই ঘরে ফিরছেন। সড়কে যতটা দুর্ভোগের আশঙ্কা করা হয়েছিল এখন পর্যন্ত তা হয়নি। মহাসড়কের কোথাও কোথাও থেমে থেমে গাড়ি চললেও বড় ধরনের যানজট নেই। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে আশুলিয়া থেকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পর্যন্ত মহাসড়কের ওপর বাসগুলো পার্কিং করে যাত্রী উঠানোর কারণে দুই লেনের অর্ধেক সড়ক দখল করে নিয়েছে। এ কারণে মহাসড়কের কোথাও কোথাও যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে উত্তরবঙ্গের ঘরমুখো মানুষের ঈদযাত্রায় কিছুটা ভোগান্তির সৃষ্টি হয়।

গাবতলী ও মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে উত্তরবঙ্গগামী বাস কাল সকালেই ছেড়ে যায়। এরপর ধীরে ধীরে আরও বাস রওনা করে। তবে গাবতলীতে রবিবার সকালে কোনো যাত্রীর চাপ নেই। টার্মিনাল একেবারেই ফাঁকা। নবীনগর-চন্দ্রা আশুলিয়ার পলাশবাড়ী বাসস্ট্যান্ড থেকে বলিভদ্র বাজার পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার মহাসড়কে বাস থামিয়ে রাখা হয়েছে। দেখে দেখে যাচ্ছি তুলে দূরপাল্লার উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছে। বাসগুলো প্রায় রাস্তার অর্ধেক দখল করে থাকায় এই সড়কে যানবাহন ধীর গতিতে চলছে।

বগুড়াগামী হৃদয় পরিবহনের যাত্রী আরাফ জানান, বাস চালকদের খামখেয়ালিপনার কারণে মহাসড়কে যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়। সাভারের পল্লী বিদ্যুৎ বাসস্ট্যান্ড থেকে বলিভদ্রবাজার বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার সড়ক দখল করে যাত্রী তোলা হচ্ছে। মহাসড়কের এসব এলাকায় পুলিশ যানজট নিরসনে অনেকটাই উদাসীন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পলাশবাড়ী থেকে বাইপাইল পর্যন্ত মহাসড়ক আঞ্চলিক সড়কে পরিণত হয়েছে। মহাসড়কের উপর যানবাহনের দীর্ঘ পার্কিং লাইন। পার্কিংয়ের কারণে মহাসড়ক আঞ্চলিক সড়কে পরিণত হয়েছে। প্রতিটি যাত্রীবাহী বাস ২০ মিনিট থেকে এক ঘন্টা পর্যন্ত মহাসড়কে দাঁড়িয়ে থেকে দূরপাল্লার যানবাহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি করছে।

রি-ডিডিএম/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়