রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বছরের পর বছর চলতে পারে: ন্যাটো

আগের সংবাদ

সিরিজ বোমা হামলার পলাতক জামায়াত নেতা গ্রেপ্তার পশ্চিমবঙ্গে

পরের সংবাদ

চট্রগামে আওয়ামী লীগ নেতাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২২ , ১১:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ২৯, ২০২২ , ১১:৫১ অপরাহ্ণ

চট্রগ্রামের পটিয়ায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি জিতেন কান্তি গুহকে দিনদুপুরে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার হাইদগাঁও ইউনিয়নের ব্রাহ্মণঘাটার গাউছিয়া কমিউনিটি সেন্টারের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইফতার মাহফিলকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থকরা তাকে মারধর করেছে। মারধরের সময় তার জামাও খুলে নেওয়া হয়। এই ঘটনার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাবেক ইউপি সদস্য শহীদুল ইসলাম জুলু জানান, শুক্রবার হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ উনাকে ইফতার মাহফিলে দাওয়াত দেয়নি। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে ৩০/৪০ জন লোক নিয়ে অনুষ্ঠানে এসে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল হক হাফেজকেসহ বিভিন্নজনকে গালাগালি করতে থাকেন। এক পর্যায়ে ইন্দ্রজিৎ লিও নামের সাবেক একজন ইউপি সদস্য জিতেন গুহকে ঘুষি মারেন। এ সময় উনার সঙ্গে থাকা বাকি লোকজন জিতেন গুহকে টেনে-হিঁচড়ে বাইরে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করে রক্তাক্ত করে ফেলে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

এ বিষয়ে হাইদগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জসিম বলেন, ‘সরকারি টিউবওয়েল ও চাকরি দেয়ার কথা বলে বিভিন্নজনের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন জিতেন গুহ। এমনকি মানুষের জায়গাও দখল করেছেন তিনি। এছাড়া মুজিববর্ষের সরকারি ঘর দিবে বলেও তিনি বিভিন্নজনের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন। সেটা প্রমাণিত হওয়ায় তার সভাপতির পদও চলে গেছে এবার। আজ ওই লোকগুলো তাকে পেয়ে টাকা ফেরত দিতে বলে মারধর করে। আমি খবর পেয়ে তাকে গিয়ে রক্ষা করেছি।’

পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ও ইফতার মাহফিলের ব্যানারে চেয়ারম্যানের ছবি দেয়া নিয়ে তার লোকজন জিতেন গুহকে মারধর করেছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়