জাতীয় স্বার্থে ঈদে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় না করার আহবান

আগের সংবাদ

আফগানিস্তানের মাইক্রোবাসে জোড়া বিস্ফোরণ, নিহত ৯

পরের সংবাদ

ক্রিকেটার রুবেলের পরিবারের সঙ্গে থাকবেন মেয়র আতিক

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২২ , ২:২৭ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ২৯, ২০২২ , ৫:০৭ অপরাহ্ণ

প্রয়াত ক্রিকেটার মোশাররফ রুবেলের পরিবারের পাশে থাকার প্রত্যায় জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, রুবেলের ছেলে রুশদান রুবেলের শূন্যস্থান পূরণ করে এই জাতির জন্য অবদান রাখবে। আমি এই পরিবারের একজন সদস্যের মতো অভিভাবক হিসেবে সবসময় পাশে থাকবো এবং সিটি করপোরেশন এই পরিবারের যেকোনো প্রয়োজনে সহযোগিতা করবে।

শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর বারিধারায় প্রয়াত ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেলের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

সাক্ষাৎকালে মেয়র ক্রিকেটার রুবেলের স্ত্রী, সন্তান, মা ও ভাইসহ উপস্থিত তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং রুবেলের মৃত্যুতে সহমর্মিতা জানান।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর বারিধারায় প্রয়াত ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেলের বাসায় তার শিশুপুত্রের সঙ্গে কথা বলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। ছবি: ভোরের কাগজ

এসময় তিনি রুবেলের শিশুপুত্র রুশদানের সঙ্গে গল্প করে কিছু সময় কাটান এবং তাকে কিছু উপহারসামগ্রী প্রদান করেন। সাক্ষাৎ শেষে মেয়র উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

মেয়র বলেন, রুবেল বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার হিসেবে বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকাকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি খেলাধুলার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র ছিলেন। রুবেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্লু এবং গোল্ড মেডেল অর্জনসহ অনেক পুরস্কার অর্জন করেছে। সর্বোপরি রুবেল একজন নম্র-ভদ্র ও ভালো মানুষ ছিল। তার মৃত্যুতে আমরা বাংলাদেশের একটি সম্পদ হারিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমি ওমরা পালনে পবিত্র নগরি মক্কায় অবস্থানকালীন রুবেলের মৃত্যু সংবাদ পেয়েছি এবং পরিবারের চাওয়ায় বনানী কবরস্থানে রুবেলের মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছি। রুবেলের কবরটি স্থায়ীভাবে সংরক্ষণের জন্য তার স্ত্রীর যে আকুতি আমি মক্কায় থাকাকালীন সেটি জানার সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছি। আজ আমি রুবেলের পরিবারের সদস্যদের সাথে সরাসরি সাক্ষাৎ করে জানাতে এসেছি রুবেলের কবরটি স্থায়ীভাবে সংরক্ষণে দ্রুতই সব ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঈদের পরেই বোর্ড সভায় কবরটি স্থায়ীভাবে সংরক্ষণের বিষয়টি অনুমোদন করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে বলে জানান মেয়র আতিক। এসময় রুবেলের স্ত্রী চৈতি ফারহানা তার আবেদনে সাড়া দেয়ায় এবং তার পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাৎ করতে যাওয়ায় ডিএনসিসি মেয়রকে ধন্যবাদ জানান।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়