অভিনয়ে ৩০ বছর পূর্ণ করলেন বিজরী বরকতউল্লাহ

আগের সংবাদ

স্কুল-কলেজে রোজার ছুটি ২১ এপ্রিল থেকে

পরের সংবাদ

‘টিপ পরছস কেন’ বলা সেই পুলিশ সদস্য সাসপেন্ড

প্রকাশিত: এপ্রিল ৪, ২০২২ , ৫:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৪, ২০২২ , ৮:৩০ অপরাহ্ণ

টিপ পরা নিয়ে রাজধানীর ফার্মগেট এলাকায় এক শিক্ষককে কটূক্তির অভিযোগে আটক কনস্টেবল নাজমুল তারেককে সাময়িক বরখাস্ত (সাসপেন্ড) করা হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) একজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ডিএমপির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম সোমবার সকালে জানান, শনাক্ত করার পর নাজমুল তারেককে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল নাজমুল তারেক ওই নারীকে অবমাননার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) প্রটেকশন ডিভিশনে কাজ করছেন।

তেজগাঁও থানার উপ-কমিশনার (ডিসি) বিপ্লব কুমার সরকার জানান, তবে সাধারণ ডায়েরিতে ভুক্তভোগী নারী যে অভিযোগ তুলেছেন যথাযথ প্রক্রিয়ায় তদন্তের মাধ্যমে সে ঘটনার সত্যতা তুলে আনা হবে।

সোমবার (০৪ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় তিনি বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষিকা জিডিতে করা অভিযোগে ওই পুলিশ সদস্যের নাম ও পদবী বলেননি। শুধু একজন পুলিশ কনস্টেবলের কথা উল্লেখ করেছেন। অভিযোগ পেয়ে আমরা গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত শুরু করি। এ বিষয়ে ডিএমপি কমিশনার, আইজিপি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও ঘটনার যথাযথ প্রক্রিয়ায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। পুরো তেজগাঁওয়ে কর্মরত সদস্যদের নিয়ে আমরা একযোগে তদন্তে নামি। পরে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে শনাক্ত করতে সক্ষম হই।

গত শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটে তেজগাঁও কলেজের থিয়েটার অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক ড. লতা সমাদ্দারকে টিপ পরা নিয়ে কটূক্তি করে পুলিশ কনস্টেবল নাজমুল তারেক। সোমবার তাকে আটক করে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়