সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পোস্টার, যুবক আটক

আগের সংবাদ

বঙ্গবন্ধু, একটি দেশ ও একটি জাতির ইতিহাস

পরের সংবাদ

টাইগারদের সিরিজ জয়ের মিশন

প্রকাশিত: মার্চ ২০, ২০২২ , ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মার্চ ২০, ২০২২ , ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ৩৮ রানে জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে টাইগাররা। রবিবার দুপুর ২টায় জোহানেসবার্গে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এ ম্যাচ জিতলে সিরিজ নিশ্চিত হবে তামিম-সাকিবদের। সেই সঙ্গে আইসিসি বিশ্বকাপ সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলে টাইগারদের অবস্থান আরো সুদৃঢ় হবে। এখন পর্যন্ত ১৬ ম্যাচে ১১ জয়, ৫ হারে ১১০ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে বাংলাদেশ।

সম্প্রতি ঘরের মাঠে আফগানিস্তানকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছে রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সুপার লিগের প্রথম দল হিসেবে ১০০ পয়েন্ট পায় বাংলাদেশ। সুপার লিগের ১৩ দলের মধ্যে আয়োজক ভারতসহ আট দল ২০২৩ সালের বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার ছাড়পত্র পাবে। সুপার লিগে টাইগারদের অবস্থান যতটা শক্তপোক্ত, প্রোটিয়াদের ততটা নয়। এখন অবধি ১১ ম্যাচে ৩ জয়, ৬ হার ও ২টি পরিত্যক্ত ম্যাচের কারণে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দশমস্থানে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দেশ-বিদেশের মাটিতে বাঘা বাঘা দলকে হারিয়ে বিশ্ববাসীকে চমক দেখানো টাইগাররা প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে পাত্তাই দেয়নি বললে এক বিন্দু বাড়িয়ে বলা হবে না। ব্যাটে-বলে দাপট দেখিয়ে জিতেছে রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। বাংলাদেশের ৩১৪ রানের জবাবে খেলতে নেমে ২৭৬ রানে থামে প্রোটিয়াদের ইনিংস। ৩৮ রানের জয় নিয়ে হাসতে হাসতে মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে তামিম, লিটন, সাকিব এবং ইয়াসির আলী রাব্বির ঝলকে রান পাহাড়ে আরোহণ করে টাইগাররা। বল হাতে দুই পেসার শরিফুল ও তাসকিন আহমেদ এবং স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের বোলিং তোপে কোমড় সোজা করে দাঁড়াতে পারেনি স্বাগতিকরা। রবিবার টাইগাররা প্রথম ম্যাচের মতো নৈপুণ্য প্রদর্শন করতে পারলে সিরিজ জয় কঠিন হবে না। দীর্ঘ ২০ বছর অপেক্ষার পর অবশেষে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পেরেছে বাংলাদেশ দল। তিন ফরম্যাট মিলে আগের ১৯ ম্যাচ হেরেছিল টাইগাররা। এবার ২০তম ম্যাচে প্রোটিয়াদের তাদেরই মাঠে ৩৮ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে তামিম ইকবালের দল।

চলতি বছর আরো একটি প্রথমের জন্ম দিয়েছে বাংলাদেশ। গত জানুয়ারিতে প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নিউজিল্যান্ডকেও হারিয়েছিল টাইগাররা। এবাদত হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে প্রথমবারের মতো কিউইদের বিপক্ষে টেস্ট জয়ের স্বাদ পেয়েছিল বাংলাদেশ।

নতুন বছরের শুরুর তিন মাসের দারুণ দুই সাফল্যের পর থেমে থাকতে রাজি নন বাংলাদেশের অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। আরো বড় স্বপ্ন নিয়ে এগোতে চান সামনের দিকে। বিশেষ করে চলতি বছর হতে যাওয়া এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ জয়ের ইচ্ছার কথাও জানালেন তিনি।

শনিবার মিরাজ বলেন, ‘স্বপ্ন যদি বড় না থাকে তাহলে তো এগোনো যায় না। আমাদের সবার স্বপ্ন অনেক বড়। আমরা ভালো কিছু করতে চাই। দেশে যেমন সিরিজ জিতি বাইরেও জিততে চাই। আমরা এশিয়া কাপ, বিশ্বকাপ জিততে চাই।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘আমাদের তেমনই চিন্তা-ভাবনা, আমরা কীভাবে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারি এবং দেশের বাইরে সিরিজ জিততে পারি। এখন আমরা সেভাবেই পরিকল্পনা করছি এবং প্রক্রিয়া অনুসরণ করছি। কীভাবে ভালো ক্রিকেট খেলে আমরা জয় অর্জন করতে পারি।’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এ পর্যন্ত ২২টি ওয়ানডে খেলেছে বাংলাদেশ। জয় আছে ৫টি, হার ১৭টি। পাঁচ জয়ের প্রথমটি এসেছিল ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে। পরের দুটি ২০১৫ সালে। ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল টাইগাররা। আর চতুর্থ জয়টি আসে ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে। যেটি হয়েছিল ইংল্যান্ডে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে প্রথম জয় এসেছে গতকাল।

এবারের সফরের আগে মোট তিনবার দক্ষিণ আফ্রিকায় দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। তিন সিরিজে ৮টি ম্যাচের সবই হারে টাইগাররা। এছাড়া ২০০৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে হওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপের এক ম্যাচে প্রোটিয়াদের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। সেই ম্যাচটিও হারে টাইগাররা। ঘরের বাইরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মোট ১০ ম্যাচ খেলে মাত্র একটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। অতীত ভুলে রবিবার সিরিজ জয়ের নেশায় মাঠে নামবে টাইগাররা।

রি-এসএস/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়