নতুন বাকশাল প্রতিষ্ঠার চক্রান্ত করছে সরকার: ফখরুল

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

স্ক্রিনশট ফাঁস করলেন নিপুণ, মামলার হুমকি জায়েদ খানের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩০, ২০২২ , ৭:৪৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০২২ , ৮:৫২ অপরাহ্ণ

সদ্য অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ১৭ তম বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে টালমাটাল সিনেমাপাড়া। নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে পরাজিত প্রার্থী চিত্রনায়িকা নিপুণ দাবি করেছেন জায়েদ খান চক্রান্ত করেছেন। নানা ষড়যন্ত্র করে ভোটে জিতেছেন।

রবিবার (৩০ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জায়েদ খানের সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ের কোনো এক ব্যক্তির আলাপের স্ক্রিনশট ফাঁস করেন নিপুণ। সেখানে দেখা যায়, কাঞ্চন-নিপুণ-রিয়াজদের হারানোর জন্য অপকৌশল অবলম্বন করছেন জায়েদ।

বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন জায়েদ খান। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বললেন, ‘স্ক্রিনশটের ব্যাপারটি নির্বাচনের আগের দিনই আমার কাছে এসেছে। একজন পাঠিয়েছে। আধুনিক যুগে এগুলো সবাই জানেন। স্ক্রিনশট হলে, যার কাছে মেসেজ পাঠিয়েছি, তার ছবিটা কোথায়? দুইজনের সঙ্গে আলাপের স্ক্রিনশট দেখানো হয়েছে, তাহলে সেই মানুষটা কে? আমরা এতো বোকা না। স্ক্রিনশট দিয়ে তার নামটা সরিয়ে দেবেন, তাহলে কীভাবে হবে! ওই লোকটাকে সামনে আনেন। যাকে আমি এসব মেসেজ দিয়েছি, তাকে দেখতে চাই।’

টানা তিনবার শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হওয়া এই নায়ক আরও বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ বানোয়াট। আমার একটা ছবি দিয়ে প্রোফাইল খুলে এই স্ক্রিনশটগুলো রেডি করে তারপর ছেড়ে দিয়েছে। আমি ওইদিনই বিষয়টি নিয়ে সাইবার ক্রাইম ডিপার্টমেন্টে কথা বলেছি। অলরেডি আমি স্ক্রিনশট পাঠিয়ে দিয়েছি। তারা এটা নিয়ে কাজ করছেন। এটা যে করেছে, তাকে আইনের আওতায় আনার জন্য আমি মামলা পর্যন্ত করব।’

জায়েদ খান আরও বলেন, ‘মেসেজের পাশে ওই ব্যক্তির ছবিও থাকার কথা, উপরে নাম থাকার কথা। কিছুই নেই। এটা কীভাবে সম্ভব। এটা সুপার এডিটেড। আমি বলেছিলাম, আমাকে মার্ডার কেসে আটকানোর চেষ্টা করেছে, পপিকে দিয়ে আটকানোর চেষ্টা করেছে, এখন এগুলো শুরু করেছে। ঘটনা হলো, জায়েদ খান জিততেই পারবে না। কিছু মানুষের এমন মানসিকতা কাজ করছে।’

জায়ের কথোপকথনের স্ক্রিনশট ফাঁস করেন নিপুন

‘কথোপকথন’-এর স্ক্রিনশটে কী ছিল লেখা:

জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী অভিনেতা জায়েদ খানের বেশকিছু ‘কথোপকথন’-এর স্ক্রিনশট প্রকাশ করা হয়েছে। দাবি করা হয়েছে, জায়েদ খান ও প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কয়েকজন কর্মকর্তার কথোপকথনের চিত্র এসব।

প্রেসক্লাবে প্রজেক্টরে প্রদর্শন করা সেসব স্ক্রিনশটের প্রথমেই লেখা ছিল, ‘ভাইয়া পেমেন্ট ক্লিয়ার নো টেনশন।

’ অপর প্রান্ত থেকে উত্তর, ‌‘বেশ, তাদের সবাইকে এফডিসির গেইট থেকে দূরে অবস্থান করতে বলে দিয়েছি। তুমি বুকে সাহস রেখে কাজ চালিয়ে যাও। ’

জায়েদ খানের দিক থেকে লেখা, ‘ভাইয়া হারুন ভাই বললো রিয়াজকে সরাতে হবে। ’
অপরাপ্রান্ত থেকে লেখা, ‘শুনো জায়েদ সব তোমার ইচ্ছেমতো হলে চলবে না। প্রশাসনিক ঝামেলা আমাকে পোহাতে হয়। রিয়াজকে টেকনিকালি এখন কিছু করতে গেলে তাতে তোমার উপরে চাপ সৃষ্টি হবে। রিয়াজ বরং ভিতরেই থাকুক বিকল্প উপায় বের করো। ’

পরে জায়েদ খানের মন্তব্য, ‘ভাইয়া আমি সব সেটিং করে রাখছি। আপনি পারমিশন দিলে গেম প্লে স্টার্ট করব। ’
আরেকটি স্ক্রিনশটে জায়েদের লেখা, ‘বাট প্ল্যান ১০০ ভাগ সাকসেস হয়নি। ’ অপরপ্রান্ত থেকে উত্তর, ‘স্টে কুল। ’
জায়েদ খান আবার বলছেন, ‘আমার জন্য ভাবছি না স্যার, মিশা ভাই টেনশন ফিল করছে। ’ অপরপ্রান্ত থেকে উত্তর আসে, ‘আই কল্ড দা টপ লেভেল। ’

জায়েদ খান বলছেন, ‘একটু তাড়াতাড়ি স্যার। ’ অপরপ্রান্ত থেকে লেখা, ‘আই সি হোয়াট ক্যান বি ডান। ’
জায়েদ খান লিখেছেন, ‘বাহিরে অনেক মানুষ, আমার নিরাপত্তা দরকার স্যার। ’ উত্তর আসে, ‘দ্য পুলিশ পোস্ট ইজ রেডি ফর ইউ। সো ডোন্ট ওরি। ’

পরক্ষণেই জায়েদ বলছেন, ‘আমি কি আপনাকে কল করব স্যার?’ অপর প্রান্ত থেকে লেখা, ‘আই অ্যাম বিজি নাউ, ওয়েট টেন মিনিটস। ’
জায়েদ লিখেছেন, ‘আপনি আমার ভরসা স্যার। ’ উত্তর আসে, ‘ইউ কল মি ভাইবার। ’
পরে জায়েদ ভাইবারে কী আলোচনা করেছিলেন? সেই প্রশ্ন মনে উঁকি দিয়েছে সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত সবার।

এই সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে ফের নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন নিপুণ। তাঁর দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন সভাপতি পদে নির্বাচিত ইলিয়াস কাঞ্চন।

রি-আরআর/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়