শিল্পকলায় মঞ্চস্থ হলো ‘কঞ্জুস’

আগের সংবাদ

সিঙ্গাইরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ফল বিক্রেতা নিহত, আটক ১

পরের সংবাদ

ত্বকে ওমিক্রন বাঁচে ২১ ঘণ্টা, প্লাস্টিকে ৮ দিন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২২ , ১১:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৭, ২০২২ , ১১:১১ অপরাহ্ণ

ত্বকে ২১ ঘণ্টা পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে করোনার অতিসংক্রামক ধরন ওমিক্রন। সেই সঙ্গে প্লাস্টিকের ওপর বেঁচে থাকে অন্তত আটদিন। ঠিক এই কারণেই দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে ওমিক্রন। জাপানের কিওটো প্রিফেকচারাল ইউনিভার্সিটি অব মেডিসিনের গবেষকদের গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে। এছাড়া, করোনাভাইরাস ও তার বিভিন্ন ধরনের পরিবেশগত স্থিতিশীলতার বিষয়টি প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়।

গবেষকরা আরও খেয়াল করেছেন, আলফা, বিটা ও ডেল্টার তুলনায় ওমিক্রন ত্বক এবং প্লাস্টিকে দ্বিগুণ সময় বেঁচে থাকতে পারে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা ও হিন্দুস্তান টাইমসের।

গবেষণায় দেখা গেছে, করোনার প্রাথমিক ধরনগুলো প্লাস্টিকের ওপর ৫৬ ঘণ্টা এবং ত্বকে সাড়ে আট ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারে। প্লাস্টিকের ওপর করোনা আলফার গড় আয়ু ১৯১ দশমিক ৩ ঘণ্টা, বিটার ১৫৬ দশমিক ৬ ঘণ্টা, গামার ৫৯ দশমিক ৩ ঘণ্টা এবং ডেল্টার ১১৪ ঘণ্টা। আর ত্বকে আলফার ১৯ দশমিক ৬ ঘণ্টা, বিটার ১৯ দশমিক ১ ঘণ্টা, গামার ১১ ঘণ্টা এবং ডেল্টার ১৬ দশমিক ৮ ঘণ্টা। অন্যদিকে প্লাস্টিকের ওপর ওমিক্রনের গড় আয়ু ১৯৩ দশমিক ৫ ঘণ্টা ও ত্বকে ২১ দশমিক ১ ঘণ্টা।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। ক্রমেই এটি মহামারি আকারে বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। ২০২০ সালের ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রাজিল ও যুক্তরাষ্ট্রে সেপ্টেম্বর, অক্টোবর, নভেম্বর ও ডিসেম্বরে আলফা, বিটা, গামা ও ডেল্টা ধরন শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম ওমিক্রন শনাক্ত হয়। এছাড়া, ইসরায়েলে ফ্লোরোনা ও ফ্রান্সে ‘আইএইচইউ-ইহু’ শনাক্ত হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার অন্য ধরনগুলোর তুলনায় ওমিক্রন মারাত্মক নয়। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রোয়েসুস বারবার বলে চলেন, সচেতনতার বিকল্প নেই।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়