বিপন্ন নাগরিক জীবন!

আগের সংবাদ

নোবেল পুরস্কার : এবার ভিন্ন মূল্যায়ন

পরের সংবাদ

শাবিপ্রবিতে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলনের ঘোষণা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২২ , ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২২ , ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরবেন না সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা এ ঘোষণা দিয়েছেন। এদিকে অনশনের তৃতীয় দিনেও উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবি বিষয়ে কোনো যৌক্তিক সমাধান আসেনি। যদিও প্রচণ্ড ঠান্ডায় একে একে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনশনরত শিক্ষার্থীরা।

এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরীকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের কাছে পাঠিয়েছেন। শুক্রবার বেলা একটা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত তিনি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তিন দফা ও উপাচার্যের সঙ্গে এক দফা বৈঠক করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা গত মঙ্গলবার রাতে উপাচার্য ফরিদ উদ্দিনকে গত বুধবার দুপুর ১২টার মধ্যে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছিলেন। পদত্যাগ না করায় ওই দিন দুপুরের পর তাঁর বাসভবনের সামনে অনশন শুরু করেন ২৪ জন ছাত্রছাত্রী। শুক্রবার সন্ধ্যায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অনশন চলছিল। তবে অসুস্থ হয়ে পড়ায় ১৪ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর বাইরে অনশনকারী এক ছাত্রের বাবা হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার ভোরে বাড়িতে গেছেন তিনি।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিক্ষার্থীদের কেউ অনশন ভাঙেননি। তাঁরা আবার কর্মসূচিতে যোগ দিতে চান। সব মিলিয়ে ৯ জন এখনো অনশন করছেন। তবে তাঁদের শারীরিক অবস্থাও ক্রমে অবনতির দিকে যাচ্ছে। তাঁরা জ্বর ও নিম্ন রক্তচাপে ভুগছেন। সবার শরীরে স্যালাইন পুশ করেছেন চিকিৎসকেরা। তবে অনশন চালিয়ে যাবেন তাঁরা।

এরই মধ্যে শুক্রবার বেলা তিনটার দিকে শিক্ষামন্ত্রী মুঠোফোনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি সাদিয়া আফরিনের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় দীপু মনি শিক্ষার্থীদের কয়েকজন প্রতিনিধিকে ঢাকায় আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে তার সঙ্গে আলোচনা করে দাবির বিষয়টি সুরাহা করার অনুরোধ জানান।

সাদিয়াসহ আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী কয়েকজন সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের জানান, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিদল তৈরি করা হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রীকে তারা এটাই বলতে চান, উপাচার্যের পদত্যাগ ছাড়া কর্মসূচি কোনো অবস্থাতেই বন্ধ করা হবে না। তবে তারা আন্দোলন ফেলে ঢাকায় যেতেও ইচ্ছুক নন। তারা ভার্চ্যুয়ালি শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে আগ্রহী। এর বিকল্প হিসেবে শিক্ষামন্ত্রীকে সিলেটে আসার জন্য তারা অনুরোধ করছেন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে শফিউল আলম চৌধুরী সন্ধ্যা সোয়া ছয়টায় বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী তাদের (শিক্ষার্থীদের) সঙ্গে কথা বলেছেন। তবে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা ভার্চ্যুয়ালি কথা বলতে চান। এর পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষামন্ত্রী আবার আমাকে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেছেন। তিনি তাদের বলতে বলেছেন, “যে অচলাবস্থা হয়েছে, সেটা ভার্চ্যুয়ালি আলোচনা করে সমাধান সম্ভব নয়।’’ তাই শিক্ষার্থীদের ঢাকায় আসার জন্য আবার অনুরোধ করতে বলেছেন। যদি তারা ঢাকায় যান, তাহলে বিষয়টা তিনি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সমাধানের চেষ্টা করবেন।’

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে ১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত উপাচার্যের পদত্যাগ চেয়ে শত শত শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল করেন।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়