বিএনপি অফিসের ঠিকানায় লবিস্ট ফার্মের সঙ্গে চুক্তি হয়: তথ্যমন্ত্রী

আগের সংবাদ

শিক্ষার্থীদের জীবন নিয়ে খেলা বন্ধ করার আহ্বান রবের

পরের সংবাদ

ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার জানুন, ঝামেলামুক্ত থাকুন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২২ , ৮:৩৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২১, ২০২২ , ৮:৩৬ অপরাহ্ণ

ব্যাংক-ব্যালেন্সওয়ালা মানুষই সাধারণত ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে থাকেন। ক্রেডিট কার্ডে আছে অনেক সুবিধা। সেই সঙ্গে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে না পারলে বিপত্তিরও শেষ নেই। আর এ কারণে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সময় কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

লিমিট নিয়ে সাবধান

ক্রেডিট কার্ড সংস্থাগুলোতে গ্রাহকদের জন্য একটি নির্দিষ্ট ক্রেডিট লিমিট বেঁধে দেয়া হয়। এক্ষেত্রে ব্যাংকের বেঁধে দেয়া সীমা গ্রাহকের নির্ধারণ করা মঙ্গল। কারণ তার ব্যক্তিগত আয়, ব্যয় ও সঞ্চয়ের হিসাব অন্য কেউ জানে না। তাই সবকিছু বিবেচনা করে গ্রাহকের নিজেরই সেই সীমারেখা টানা নির্ধারণ করা উচিত। আয় বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে অনেকে এ সীমা বাড়িয়ে নেন। তবে ক্রেডিটের সীমা অতিরিক্ত বাড়ানো উচিত নয়। এতে অনেকেই আর্থিক সংকটে পড়েন।

দ্রুত পরিশোধ করুন

অনেক গ্রাহক ক্রেডিট কার্ডে বাকি থাকা বিল সময়মতো মিটিয়ে দেন না। মাসের পর মাস ফেলে রাখেন অথবা প্রদেয় তারিখের জন্য অপেক্ষা করেন। এরফলে, বেশিরভাগ সময় নিজের অজান্তেই নিজের ওপর ঋণের বোঝা চাপিয়ে ফেলেন। সবসময় মনে রাখবেন, সব ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট প্রদেয় তারিখ থাকে। সেই তারিখ পার হলে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে জরিমানা করা হয়। সেই ক্রেডিট কার্ডের বিল পরিশোধের জন্য প্রদেয় তারিখের অপেক্ষা করবেন না। দ্রুত বিল পরিশোধ করে রাখুন। অনেক প্রতিষ্ঠান জরিমানার টাকা চক্রবৃদ্ধি সুদ আকারে নিতে থাকে।

অটো ডেবিটের সুবিধার বিষয়টি মাথায় রাখুন

সব ক্রেডিট কার্ড সংস্থাই অটো ডেবিটের সুযোগ দেয়। অটো ডেবিট হলো একটি নির্দিষ্ট দিনে ব্যাংক থেকে নিজে থেকেই ক্রেডিট কার্ডে পেমেন্ট হয়ে যায়। এরফলে, দুটি সুবিধা পাওয়া যায়। বিল পরিশোধ করতে ভুলে গেলে অটো ডেবিটের মাধ্যমে সেই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায়। অন্যদিকে, সময়মতো বিল পরিশোধ হলে বাড়তি ঋণের বোঝা থেকে মুক্তি মেলে।

ধারের বিষয়টি খেয়াল রাখুন

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সময় সবসময় সজাগ থাকুন। খেয়াল রাখুন কত টাকা ধার নিচ্ছেন এবং সেই টাকা কত দিনে পরিশোধের সামর্থ্য রাখেন। প্রয়োজনে সেই টাকা ইএমআইয়ে ভাঙিয়ে নিন। সব ক্রেডিট কার্ড সংস্থাই নির্দিষ্ট একটি অঙ্কের বিনিময়ে তিন মাস, ছয় মাস ও ১২ মাস ইএমআইয়ে ভাঙিয়ে নিতে দেয়। অতিরিক্ত সুদ এড়াতে এ পন্থা অবলম্বন করতে পারেন।

ক্রেডিট ইউটিলাইজেশন রেশিও ঠিক রাখুন

সঠিক সময়ে ক্রেডিট কার্ডের বিল পরিশোধ করলেও ক্রেডিট স্কোর নেমে যেতে পারে। এটি নির্ভর করে ক্রেডিট ইউটিলাইজেশন রেশিওর ওপর। যে গ্রাহক যত বেশি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন তার ক্রেডিট ইউটিলাইজেশন রেশিও বেশি। আবার যেসব গ্রাহকের ক্রেডিট ইউটিলাইজেশন রেশিও বেশি সেসব গ্রাহকও ব্যাংকের চোখে ঝুঁকিপূর্ণ। তাই সব গ্রাহকেরই উচিত ক্রেডিট ইউটিলাইজেশন রেশিও ঠিক রাখা। এক্ষেত্রে, একাধিক ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে খরচকে ভাগ করে দিন। অন্যদিকে, আপনার ক্রেডিট কার্ডের সর্বোচ্চ সীমার ৫০ শতাংশ বা তার কম ক্রেডিট ব্যবহারে আপনার ক্রেডিট স্কোর বাড়াতে পারে।

নগদ উত্তোলন করবেন না

সব ক্রেডিট কার্ড সংস্থাই ক্রেডিট কার্ডে নগদ অর্থ তোলার সুযোগ দেয়। তবে ক্রেডিট কার্ড থেকে নগদ টাকা না তোলাই ভালো। কারণ কার্ডে নগদ টাকা তুললে সুদ চালু হয়ে যায়। যার কারণে গ্রাহককে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়