চট্টগ্রামে করোনা রোগী শনাক্ত ১০১৭, হার ৩৩ শতাংশ

আগের সংবাদ

ছোট পর্দায় বাবুলের সঙ্গে জুটি বাঁধছেন দেবচন্দ্রিমা

পরের সংবাদ

অনশনরত শাবির ১০ শিক্ষার্থী হাসপাতালে, বাকিরাও অসুস্থ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২২ , ১২:৪২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২১, ২০২২ , ১২:৫২ অপরাহ্ণ

উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে ৪৪ ঘণ্টা ধরে চলমান অনশনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এর মধ্যে ১০ শিক্ষার্থী হাসপাতালে এবং বাকি শিক্ষার্থীরা ধীরে ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এছাড়া, ইতোমধ্যে অসুস্থ হবার কারণে ১৪ শিক্ষার্থীকে প্রাথমিক চিকিৎসা ও স্যালাইন দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) সকালে দুই শিক্ষার্থীসহ ১০ শিক্ষার্থী সিলেট এম এ জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ প্রতিবেদন লেখার আগ পর্যন্ত, শুক্রবার সকালে আরও দুইজন শিক্ষার্থীসহ ১০ শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এদিকে হাসপাতাল থেকে এক শিক্ষার্থী চিকিৎসা নিয়ে অনশন না ভেঙে পুনরায় অনশনে বসেছেন বলেও জানা যায়।

অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থীকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ছবি: ভোরের কাগজ

অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থী শাহরিয়ার আবেদিন বলন, আমাদের অনশনের প্রায় ৪৪ ঘন্টা পার হতে চলেছে। এ সময়ে এক ফোঁটা পানিও গ্রহণ না করায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ৮ জন শিক্ষার্থী, খাবার গ্রহণ না করলে জীবন সংশয় হতে পারে ডাক্তাররা বারবার এই সতর্কবাণী দেয়া সত্ত্বেও তারা এখনো অনশন ভাঙতে রাজি হননি। অনশনস্থলে থাকাদের মধ্যে বর্তমানে ১৩ জনকে স্যালাইন দেয়া হচ্ছে। যত কষ্টই হোক, যত ত্যাগই স্বীকার করতে হোক, এই নির্লজ্জ, বেহায়া ভিসির পদত্যাগের আগ পর্যন্ত আমরা অনশন জারি রাখব।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টায় মশাল মিছিল করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। ছবি: ভোরের কাগজ

এর আগে, উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় মশাল মিছিল করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। এ সময় ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী মশাল মিছিলে অংশ নেয়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা যে পর্যন্ত উপাচার্য পদত্যাগ করছেন না, সে পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে ঘোষণা দেন।

প্রায় ৪৪ ঘণ্টা ধরে ২৪ শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অনশন করছে। এছাড়া আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থা করছে। দফায় দফায় শিক্ষক প্রতিনিধিরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে ও অনশন ভাঙাতে অনশনস্থলে আসছে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়