পৌনে ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৪০ শতাংশ: জেলা প্রশাসক

আগের সংবাদ

অং সান সু চির বিরুদ্ধে আরও ৫ অভিযোগ

পরের সংবাদ

উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট চলছে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২২ , ১:১৯ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০২২ , ১:১৯ অপরাহ্ণ

উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট। তবে ইভিএম- এর যান্ত্রিক জটিলতায় কিছুটা ভোগান্তিও পোহাতে হচ্ছে ভোটারদের।

ভোট শুরু হওয়ার পর থেকে এই ভোগান্তি লক্ষ করা গেছে। যদিও ইভিএম এর দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, সকালে কিছুটা যান্ত্রিক জটিলতা থাকলেও পরে তা সারিয়ে তোলা হয়।

এদিকে সকাল থেকেই ভোটারদের উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট কেন্দ্রে আসতে দেখা যায়। সিদ্ধিরগঞ্জের সাফুরা খাতুন পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এই কেন্দ্রের দুই-একটি বুথে ইভিএম-এর যান্ত্রিক জটিলতার খবর পাওয়া যায়। এ কারণে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে ভোটারদের। ফলে ভোটকেন্দ্রের ভেতরে দীর্ঘ সারি দেখা গেছে।

এ সময় ভোটাররা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকেও ভোট দিতে পারছি না। ভেতর থেকে আমাদের বলা হচ্ছে যান্ত্রিক জটিলতা। ভোটারদের অভিযোগের বিষয়ে কথা হয় এই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আহসানুল করিমের সঙ্গে। ইভিএম এ শুরুতে কিছুটা জটিলতা ছিল স্বীকার করে তিনি বলেন, এখন কোনো জটিলতা নেই। একই অভিযোগ করেছেন নারায়ণগঞ্জ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ভোটাররাও।

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ভোট দিয়েছেন সকাল সাড়ে নয়টায়। ভোট দিয়ে তিনি বলেছেন, ভোটের পরিবেশ এখনও ঠিক আছে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি জিতব ইনশাআল্লাহ। এর আগে সকাল সাড়ে ৮টায় নারায়ণগঞ্জ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রের ৭ নম্বর বুথে ভোট দেন স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। ভোট দেয়া শেষে তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, ভোট নেয়া চলছে। এখনই কোনো মন্তব্য করা ঠিক হবে না। সার্বিক অবস্থা আরো সময় পার হলে বলা যাবে।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এবারই প্রথম এ পৌরসভার সবগুলো কেন্দ্রে ইভিএম-এ ভোটগ্রহণ হচ্ছে। নির্বাচনে এবার মেয়র পদে সাতজন, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ৩৪ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১৪৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরশেনের সদর, সিদ্ধিরগঞ্জ ও কদমরসূল অঞ্চলের ২৭টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭ জন। ভোট ঘিরে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

টিআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়