গার্লফ্রেন্ডের বিশ্বস্থতা পরীক্ষা করে লাখ টাকা আয়!

আগের সংবাদ

প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগের দাবিতে শাবি শিক্ষার্থীদের আলটিমেটাম

পরের সংবাদ

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে তিন স্তরের নিরাপত্তা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ৭:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ৭:২৯ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে নির্বাচন উপলক্ষে একটি উৎসব মুখর পরিবেশ তৈরী হয়েছে। নির্বাচনের এই পরিবেশ কেউ ভঙ্গ করার চেষ্টা করবেন না। কেউ যদি বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করেন তাহলে তাকে কঠোর হস্তে দমন করা হবে। ভোটাররা নিশ্চিন্তে ভোট দিতে আসবেন, কোনো বাধা সৃষ্টি হবে না। সারা বিশ্বাবাসী দেখবে যে ঐতিহ্যবাহী এই নারায়ণগঞ্জের ভোট কতোটা সুষ্ঠ হয়। এটা একটি মডেল নির্বাচন হবে।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইরে অবস্থিত জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা পুলিশ ও আনসার সদস্যদের ব্রিফিং অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে রিটার্নিং কমকর্তা মাহফুজা আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাাফিজুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মতিয়ুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, কাউকে ভোট কেন্দ্র দখল, ভোট কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করতে দেওয়া হবে না। ভোট কেন্দ্রে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় থাকবে। নির্বাচনে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবিসহ পাঁচ হাজারের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন থাকবে। একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে নিরাপত্তায় কঠোর অবস্থানে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। নির্বাচনে কোনো ধরনের ছাড় আমরা দিবো না এবং কোনো রকমের অরাজকতা সৃষ্টি করার সুযোগ আমরা দিবো না। আমরা আইন শৃঙ্খলাবাহিনী কঠোর অবস্থানে আছি এবং থাকবো। বহিরাগত কাউকে আমরা নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করতে দিবো না। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটগন থাকবেন, র‌্যাব থাকবেন। ভোটের দিন জাতীয় পরিচয় পত্র দেখে আপনাকে ভোট কেন্দ্রে যেতে দেয়া হবে। তাই ভোটের দিন অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র সঙ্গে নিয়ে বের হবেন।

এসপি বলেন, নির্বাচনের দিন বহিরাগত কাউকে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। আঠারো বছরের উপরে যারা নারায়ণগঞ্জ থেকে বের হবেন তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে।

মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের পুলিশি হয়রানির অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুলিশ কোনো ব্যক্তি, দল বা গোষ্ঠীর হয়ে কাজ করছে না, কাউকে হয়রানি করছে না। সন্ত্রাসী বা মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আগামীকাল রবিবার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের মেয়র পদে সাত প্রার্থী, কাউন্সিলর পদে সাধারণ ওয়ার্ডে ১৪৮ ও সংরক্ষিত আসনে ৩৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ জন। ২৭টি ওয়ার্ডের ১৯২টি ভোটকেন্দ্রের মাধ্যমে ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

রি-এআর/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়