ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের হল সম্মেলন ৩০ জানুয়ারি

আগের সংবাদ

মাছধরার ট্রলারসহ ২৩ জেলে অপহরণ করেছে জলদস্যুরা

পরের সংবাদ

গরীব মেধাবী ছাত্র হামিম হাসানের জীবন বাঁচাতে পরিবারের আকুতি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ১১:৩২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ১১:৩২ অপরাহ্ণ

চোখের দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত দশম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র হামিম হাসান দেখতে চায়। চায় লেখাপড়া শিখে আর দশটা মানুষের মত মানুষ হয়ে বাঁচতে।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পল্লী উন্নয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী হামিম। পিতা মাতার অভাবী সংসারে দুই ভাইয়ের মধ্যে সে ছোট। তার পিতা আদম আলী একজন দিনমজুর, মাতা মোছা. নাজমা পারভীন গৃহিনী।

হামিম হাসানের চোখে দূরারোগ্য জটিল রোগে বাসা বেধেছে। ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালের ডাক্তাররা জানিয়েছেন, হামিম হাসানের চোখ ভাল করতে জরুরী ভিত্তিতে তাকে আবার অপারেশন করাতে হবে। তার জন্য লক্ষ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। যা দিনমজুর গৃহিনী পিতা মাতা ও তাদের পরিবারের পক্ষে জোগাড় করা সম্ভব নয়। টাকার অভাবে এখন সে প্রায় বিনা চিকিৎসায় ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে আছেন।

এর আগে চোখের চিকিৎসার জন্য ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার চোখের ভেতরে টিউমারের অপারেশন করেন। টিউমারে ক্যান্সারের জীবানু সারকোমা পাওয়া গেছে বলে জানান। তখন হামিম হাসানকে ঢাকা ক্যান্সার হাসপাতালে ভর্তি করে ৩টি থেরাপি দেওয়া হয়। ক্যান্সারের চিকিৎসা শেষে তাকে আবার চোখের চিকিৎসার জন্য ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে নিস্ব পিতা মাতার আর্তনাদ আমার সন্তানকে বাঁচান। আপনাদের সকলের কাছে সাহায্য চাইছি।

‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য’ এই উপলব্ধি থেকে আমরা কি সকলে মিলে পারিনা তাকে বাঁচিয়ে তুলতে? আর্তমানবতার সেবায় তাকে সাহায্য পাঠানো যাবে এই ঠিকানায়- মো. আদম আলী, সাউথ বাংলা এ্যাগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক লিঃ, সাতক্ষীরা শাখা। হিসাব নং-০০২৮১২০০৫১৮০৭, বিকাশ নং (পারসোনাল) ০১৯৬ ৭০৩২২৫।

রি-এমআরএফ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়