ময়মনসিংহে ট্রাকচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

আগের সংবাদ

অধ্যাপক তাজমেরী গ্রেপ্তারের ঘটনায় জবি সাদা দলের নিন্দা

পরের সংবাদ

রাজমিস্ত্রি আনারুলের স্বীকারোক্তি: টাকা লুটতেই ঢাবি শিক্ষককে হত্যা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২২ , ১০:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০২২ , ১০:০৮ অপরাহ্ণ

টাকা লুটে নিতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক সাহিদা গাফফারকে (৭১) হত্যা করা হয়। পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে এ কথা জানিয়েছেন রাজমিস্ত্রি আনারুল।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সাহিদাকে হত্যার অভিযোগে রাজমিস্ত্রি আনারুলকে বৃহস্পতিবার রাতে গাইবান্ধা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা গেছে, পানিশাইল এলাকায় অবস্থিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক আবাসন প্রকল্পে প্রফেসর সাহিদার প্লট ছিল। পানিশাইল এলাকার মোশারফ হোসেন মৃধার বাসায় ভাড়া থেকে তিনি বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। ১১ মাস ধরে তিনি একাই থাকতেন ভাড়া বাসায়। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে ছেলেমেয়েরা মা সাহিদার সাথে যোগাযোগ করতে পারছিল না। মেয়ে সাহিদা আফরিন মায়ের নিখোঁজের ব্যাপারে বৃহস্পতিবার কাশিমপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

কাশিমপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ মিজানুর রহমান বলেন, রাজমিস্ত্রি আনারুলকে থানায় এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নির্মাণাধীন বাড়ির একটু দূরের একটি জঙ্গল থেকে শুক্রবার অধ্যাপক সাহিদা গাফ্ফারের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কাশিমপুর থানার পরিদর্শক আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃত রাজমিস্ত্রি আনারুল জানিয়েছে অধ্যাপক সাহিদা গাফফারের হাতে অনেক টাকা দেখে সে লুটে নিতে চায়। এ সময় অধ্যাপক সাহিদা গাফ্ফার চিৎকার দিলে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায় আনারুল।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়