অবশেষে শপথ নিলেন দৌলতপুরের সেই চেয়ারম্যান

আগের সংবাদ

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আসা ভারতীয় যাত্রীদের করতে হবে অ্যান্টিজেন্ট টেস্ট

পরের সংবাদ

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে অনশনে প্রেমিকা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০২২ , ১০:১৯ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২২ , ১০:১৯ অপরাহ্ণ

শীত উপেক্ষা করে পছন্দের মানুষের সঙ্গে বিয়ে করার দাবি তুলে এক প্রেমিকা দুই দিন যাবৎ অনশনে রয়েছেন। ঘটনাটি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের রানীদৌলা গ্রামে ঘটেছে।

জানা গেছে, উপজেলার ময়না ইউনিয়নের রানীদৌলা গ্রামের শামচুর রহমান শেখের ছেলে মেহেরাব শেখ (১৮)। সে স্থানীয় একটি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির প্রথম বর্ষের ছাত্র। পার্শ্ববর্তী আলফাডাঙ্গা উপজেলার চরপাচুড়িয়া গ্রামের কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর (১৯) মামার বাড়ি মেহেরাব শেখের বাড়ির পাশে। ওই ছাত্রী পার্শ্ববর্তী উপজেলার একটি কলেজ থেকে এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নেন। এক পর্যায়ে মেহেরাবের সাথে বয়সে বড় ওই ছাত্রীর গভীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্প্রতি ওই ছাত্রীর পরিবার মেহেরাবের সাথে তাদের মেয়ের বিয়ের কথা বললে মেহেরাবের পরিবার সুযোগ বুঝে মোটা অঙ্কের টাকা যৌতুক দাবি করে। মেয়ের পরিবারের পক্ষে এত টাকা যোগাড় করা অসম্ভব। বিয়ের আর সম্ভাবনা না থাকায় ওই ছাত্রী বুধবার (১২ জানুয়ারি) সন্ধ্যা থেকে প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করেছেন।

সরেজমিনে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেহেরাব শেখের বাড়ি গিয়ে দেখা যায় ওই প্রেমিকা তার প্রেমিকের বাড়ির উঠানে একা বসে আছেন। আর প্রেমিক মেহেরাব শেখের বাড়ি তালাবদ্ধ। বাড়িতে কেউ ছিল না। তবে বুধবার রাতে অনশনরত মেয়েকে ওই বাড়ির লোকেরা তাদের ঘরে আশ্রয় দিয়েছেন বলে আশেপাশের বাড়ির লোকেরা জানান। বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় এই রিপোর্ট লেখার সময়ও তীব্র ঠাণ্ডার মধ্যে ওই প্রেমিকা প্রেমিকের বাড়ির উঠানে বসেছিল।

এ বিষয়ে ময়না ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. রাশেদ শেখ জানান, বিয়ের দাবিতে মেয়েটি অনশন করছে শুনেছি। তবে এলাকার বাইরে থাকায় যেতে পারিনি।

ময়না ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাসির মো. সেলিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমাকে একজন চৌকিদার বিষয়টি ফোনে জানিয়েছে। বিয়ের দাবিতে মেয়েটি অনশন করছে শুনেছি।

বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, মেয়েটির অনশনের ঘটনা শুনে বিষয়টি জানার জন্য উভয় পক্ষকে থানায় আসতে বলেছি।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়