এবার করোনা আক্রান্ত হলেন প্রসেনজিৎ

আগের সংবাদ

স্বপ্নদলের ‘চিত্রাঙ্গদা’য় মুগ্ধ দর্শক

পরের সংবাদ

প্রভাসের পাঁচ সিনেমায় খরচ দেড় হাজার কোটি টাকা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১২, ২০২২ , ৭:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০২২ , ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

আগামী দুই বছর নাকি দম ফেলারও ফুরসত নেই প্রভাসের। হাতে রয়েছে বড় বাজেটের পাঁচ-পাঁচটি সিনেমার কাজ। একবার সেসব কাজ শেষ হলেই হল! প্রযোজকেরা জানিয়েছেন, দেশের মধ্যে তো বটেই, বিদেশের মাটিতেও সেগুলো দেখানো হবে।

তেলেগু বা কন্নড়ের পাশাপাশি হিন্দিতেও মুক্তি পাবে প্রভাসের সিনেমা। সব মিলিয়ে সেগুলো তৈরির খরচই নাকি দেড় হাজার কোটি টাকারও বেশি। তবে পাঁচটির মধ্যে একটি সিনেমায় পারিশ্রমিক কত চেয়েছেন প্রভাস? খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বাহুবলী সিনেমায় অভিনয়রত প্রভাস

মাত্র একটি সিনেমার নায়কের ভূমিকায় থাকতে যে পারিশ্রমিক চেয়েছেন তা শুনলে চোখ কপালে ওঠার জোগাড়! হবে না-ই বা কেন? ‘বাহুবলী’ সিরিজের দুটি সিনেমা দিয়েই যে বক্স অফিসে সাফল্যের নতুন সংজ্ঞা লিখেছেন প্রভাস!

অমরেন্দ্র বাহুবলীর কীর্তি দেখতে সিনেমা হলে বার বার ছুটে গিয়েছেন প্রভাসের ভক্তেরা। মাত্র এক সপ্তাহেই তা দুনিয়া জুড়ে ৬০০ কোটির বেশি ব্যবসা করেছিল। আর সব মিলিয়ে তিন হাজার ৬১৬ কোটি টাকা ঘরে তুলেছিলেন প্রযোজকেরা।

‘বক্স অফিস ইন্ডিয়া’ নামে একটি ওয়েবসাইটের দাবি, ২০১৫ সালে দেশের ১৬০০ সিনেমা হলে দেখানো হয়েছিল প্রভাসের ‘বাহুবলী: দ্য বিগিনিং’। এস এস রাজামৌলির ওই সিনেমা প্রথম সপ্তাহেই ৩০ কোটি টাকার বেশি লাভ করেছিল।

‘বাহুবলী’র সাফল্যের পর তুমুল হিট সিরিজের পরের সিনেমাটি। ‘বাহুবলী ২: দ্য কনক্লুশন’-এর ব্যবসা কত? বিশ্বে সিনেমা হল থেকে আয় এক হাজার ৭৯৬ কোটি টাকারও বেশি।

‘বাহুবলী’-অধ্যায়ের পর প্রভাসের দোরগোড়ায় যে প্রযোজকদের লম্বা লাইন পড়ে যাবে, তা স্বাভাবিক। তবে সবাইকে তো একসঙ্গে খুশি করতে পারা যায় না! তাই বেছে বেছে কয়েকটি সিনেমায় কাজ করা স্থির করেন তিনি।

চলতি মাসেই মুক্তি পেতে চলেছে প্রভাসের ফিল্ম ‘রাধে শ্যাম’। এপ্রিলে ‘সালার’। আগস্টে মুক্তি পেতে পারে ‘আদিপুরুষ’। এখানেই শেষ নয়। অন্য সিনেমার নাম ঠিক হয়নি এখনও। তবে ২০২৪ সালের মধ্যে সেটিও দিনের আলো দেখতে পারে। রয়েছে ‘স্পিরিট’ নামে আরও একটি সিনেমা।

তবে যে সিনেমার জন্য আজকাল ‘পেজ থ্রি’র পাতায় ঘোরাফেরা করছে প্রভাসের নাম, সেটি হল ‘স্পিরিট’। নিজের কেরিয়ারের ২৫ নম্বর ফিল্মটি নিয়ে হইচই তো হবেই। এ আর এমন কী!

শুধুমাত্র ২৫ নম্বর সিনেমা বলে নয়, ‘স্পিরিট’র জন্য নিজের পারিশ্রমিকের অঙ্কও বাড়িয়ে দিয়েছেন ‘বাহুবলী’।

সাধারণত একেকটি ফিল্মের জন্য ১০০ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন প্রভাস। তবে সন্দীপ রেড্ডি বাঙ্গার ‘স্পিরিট’ এ তা আরও ৫০ কোটি টাকা বাড়িয়েছেন।

হ্যাঁ! ঠিকই পড়েছেন। মাত্র একটি ফিল্মে কাজের জন্য দেড়শো কোটি টাকা নিচ্ছেন প্রভাস। এ ফিল্মের পরিচালক তুলনামূলক ভাবে আনকোরা। তবে সফল বটে। প্রথম ফিল্ম তেলুগুতে ‘অর্জুন রেড্ডি’। এর পরেরটি অবশ্য হিন্দিতে। তা-ও আবার ‘অর্জুন রেড্ডি’র রিমেক- ‘কবীর সিং’। সেটিও তুমুল সফল।

‘স্পিরিট’-এ প্রভাসের পাশে নায়িকা হিসেবে কে রয়েছেন? শোনা যাচ্ছে, করিনা কপূর খান থাকতে পারেন। তবে হিন্দি এবং তেলুগু ছাড়াও তামিল, মালয়ালম, কন্নড়, জাপানি এবং কোরীয় ভাষাতেও এর সংলাপ শুনতে পারবেন প্রভাস-ভক্তেরা!

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়