মহানায়কের প্রত্যাবর্তনে স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়: মেয়র আতিক

আগের সংবাদ

নৌকার পক্ষে নামার ঘোষণা শামীম ওসমানের

পরের সংবাদ

ভঙ্গুর অর্থনীতির মধ্যেও মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে ছিলেন বঙ্গবন্ধু

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১০, ২০২২ , ৫:৪২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১০, ২০২২ , ৫:৪২ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, ‘একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ, রাস্তাঘাট নেই, ব্রিজ-কালভার্ট নেই, দেশের অর্থনীতির অবস্থা ভঙ্গুর। সেই ভঙ্গুর অর্থনীতির উপর দাঁড়িয়ে দেশ ও দেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যাত্রা শুরু করেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যখন তিনি দেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটালেন, তার নেতৃত্বে যখন সারা বিশ্ব বাংলাদেশের প্রসংশা করতে শুরু করলেন। ঠিক তখনই দেশী-বিদেশী স্বাধীনতা বিরোধীরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করল। বঙ্গবন্ধুর বুকের তাজা বক্ত দিয়ে বাংলার মাটিকে লালে লাল করল। সেদিন বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশের মানচিত্রকে হত্যা করা হয়েছিল। বাংলাদেশের স্বাধীনতা কে হত্যা করা হয়েছিল।’

সোমবার (১০ জানুয়ারি) রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুর সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দীন নাছিম।

ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আব্দুর রহমান বলেন, ‘যে জয় বাংলা স্লোগান ছিল সবার মুখে মুখে। যে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সেই সেই জয় বাংলা স্লোগান বন্ধ করে দেয়া হলো। বাংলার মানুষের উপর চাপিয়ে দেয়া হলো জাতীয়তাবাদের ভূত। তারা চেয়েছিল- জয় বাংলা স্লোগান না থাকলে স্বাধীনতার চেতনাও আর থাকবে না। কিন্তু তাদের সেই ষড়যন্ত্র কাজে আসেনি। আজ বাংলার প্রতিটি স্থানে জয় বাংলা স্লোগান উচ্চারণ হচ্ছে। তাদের সেই ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়েছে।’

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলতে পারেনি উল্লেখ করে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান বলেন, ‘তখন আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মী। কিন্তু অনেকেই বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলন গড়ে তোলেনি। যারা আন্দোলন করেছে- তাদের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে। নানামুখী নির্যাতন করা হয়েছে। জেল-জুলুম সহ্য করতে হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদে রাজপথে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মীদের জীবন দিতে হয়েছে।’

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কঠোর পরিশ্রম করছেন জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে বঙ্গবন্ধুকন্যা বাংলার মাটিতে পা রেখেছিলেন। স্বাধীনতা বিরোধীরা তাকে ১৯ বার হত্যার চেষ্টা করেছে। কিন্তু শেখ হাসিনাকে দামিয়ে রাখতে পারেনি। তিনি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলা গঠনে কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনার মধ্যেই আজ আমরা বঙ্গবন্ধুকে দেখতে পাই। শেখ হাসিনার বেঁচে আছেন বলেই দেশের উন্নয়ন হচ্ছে। অর্থনৈতিক ভাবে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাঁড়িয়েছে। গৃহহীনঘর পাচ্ছে, বস্ত্রহীন বস্ত্র পাচ্ছে। মানুষের ভাত ও ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।’

রি-আরএ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়