স্বামী ও স্ত্রী’র একই চিতায় দাহ

আগের সংবাদ

শিশুকে চার ডোজ টিকা, ৯৯৯ এ পুলিশকে কল দিলেন বাবা

পরের সংবাদ

নাসিকে প্রচারনায় এগিয়ে নৌকা প্রতীকের আইভী

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৯, ২০২২ , ১১:৪১ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৯, ২০২২ , ১১:৪১ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন (নাসিক) পুরোদমে জমে উঠেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলররা চষে বেড়াচ্ছেন পাড়া মহল্লার অলিগলি। ভোটরদের মন যোগাতে প্রার্থীদের ঘাম ঝড়ছে। তবে সব প্রার্থীর প্রচারনা ছাপিয়ে আলোচনায় আছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী, সদ্য সাবেক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি নিজে যেমন সকাল থেকে গভীররাত পর্যন্ত প্রচারনায় রয়েছেন তেমনিভাবে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা পালাক্রমে আছেন তার জন্য প্রচারনায়।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানকের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের একটি টিম সার্বক্ষনিক কাজ করছেন নারায়ণগঞ্জে। স্থানীয়দের পাশাপাশি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মী এমনকি দেশের বিভিন্নস্থান থেকে নেতাকর্মীরা নারায়ণগঞ্জে গিয়ে প্রচারনায় অংশ নিচ্ছেন। তারাও যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। আইভী ও তার পক্ষে প্রচানায় অংশগ্রহনকারীরা স্বচ্ছ ইমেজ ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় নৌকা মার্কায় ভোট চাইছেন। তাদের বিরামহীন প্রচারনা সবমহলের নজর কেড়েছে। নারী ভোটারদের রায় পেতে কাজ করছে পৃথক টিম। তরুণ-তরুণীদের জন্য চলছে ডিজটাল প্রচারনা। ইভিএম পদ্ধতিতে কিভাবে ভোট দিতে হয় সে ব্যাপারেও দেয়া হচ্ছে তালিম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে ১৯২টি কেন্দ্র ধরে ধরে ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩১৬ জন ভোটারের এই নির্বাচনে জয় পেতে সকাল থেকেই আইভীর জমজমাট প্রচারনা চলছে। ১৬ জানুয়ারি ইভিএম পদ্ধতিতে এই ভোট অনুষ্ঠিত হবে। চাষাড়া, উকিলপাড়া, আমলাপাড়া, খানপুর, দেওভোগ, মাসদাইর, ২ নং রেল গেট এলাকার ভোটারদের সঙ্গে আলাপকালে তারা আইভীর প্রচারনার ব্যাপকতা তুলে ধরেছেন। মেয়র পদে সাতজন প্রতিদ্বন্দ্বী মাঠে থাকলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকারের সঙ্গে তার দলের কয়েকজন নেতা থাকলেও কর্মীরা নেই সঙ্গে। তৈমূর একা কিছু লোকজন নিয়ে প্রচরনার মাঠে থাকলেও তার পক্ষে পৃথকভাবে নেই প্রচানরা ও জনসংযোগ। সেই হিসাবে প্রচারনায় এগিয়ে আছেন আইভী।

অনতু রেজা নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, তফসিল ঘোষণা করার পর থেকে প্রতিদিনের ধারাবাহিকতায় রবিবারও প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। কয়েক হাজার কর্মী সমর্থক নিয়ে আজ সকাল দশটায় মেয়র প্রার্থী ও সাবেক মেয়র আইভী ২২ নং ওয়ার্ড বন্দর খেয়াঘাট, বন্দর শাহী মসজিদ, রাজবাড়ী, রুপালি আবাসিক এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেন।

এ সময় তিনি বলেন, দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে যারা কাজ করছেন এ বিষয়ে কেন্দ্র সবকিছু দেখছেন এবং তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় ভাবে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। আমার বিরুদ্ধে অনেক অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। ধর্মীয়ভাবে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, জনতার কাজ জনতা করবে। কদমরসুল ব্রিজের জন্য আমরা শীঘ্রই পূর্নাঙ্গ টেন্ডারে যাচ্ছি। আগামী ৩/৪ মাসের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী এই ব্রিজের বন্দোবস্ত করবেন। সংগঠনের কিছু নেতাকর্মীর অপতৎপরতা নিয়ে উঠা অভিযোগ প্রসঙ্গ তিনি বলেন, কেন্দ্র যেহেতু সব ব্যবস্থা নিচ্ছে, সেহেতু কেন্দ্র কেন্দ্রের কাজ করবে। কিন্তু আমার বিষয় হলো আমার জনগণ। আমার জনগণ কখনো সন্ত্রাসী, গডফাদার, চাঁদাবাজ এবং খুনিকে গ্রহন করেনি। নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় নির্বাচনে সেটা বারবার প্রমানিত হয়েছে। কেন্দ্র কেন্দ্রের কাজ করবে, দল দলের কাজ করবে।

আইভী বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ, বন্দর এবং নারায়ণগঞ্জের ভোটাররা আমার কথা বলে। ধর্মপ্রান মুসলমানরা আমার কথা বলে। আমার বিরুদ্ধে প্রচুর অপপ্রচার চালানো হয়েছে। বিভ্রান্ত ছড়ানো হয়েছে। ধর্মীয় ব্যাপারে উষ্কানী দেয়া হয়েছে। কিন্তু কোনটাই কাজ হয়নি। আমি এই শহরবাসীর জন্য ৭টি মসজিদ করেছি, শ্মশানের কাজ করেছি, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে কাজ করেছি। আশা করি ধর্মপ্রান মানুষজন সেই অপপ্রচারে কান দেবে না। মানুষ আমার সঙ্গে আছে, তারা ভয় পাবেনা।

সংসদ সদস্য শামীম ওসমানকে গডফাদার বলা প্রসঙ্গে আইভী বলেন, দেখেন এটা তো আমি বানিয়ে বলিনি, এটা ওনার বিগত ৩০ বছরের উপাধি। আওয়ামী লীগ অনেক বড় একটা দল, এখানে কে থাকলো কে গেলো তার জন্য দল বসে থাকেনা। বিকেলে শেখ রাসেল পার্কে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় অংশ নেয় আইভী। তবে এই সভায় যাননি তৈমূর আলম খন্দকার।

অন্যদিকে ছাত্রলীগের উদ্যোগে চালানো হয় প্রচারনা। এতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্রাচার্জ অংশ নেয়। মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আহমেদ রেজা ও সাংগঠনিক সম্পাদক জি এল আরাফাতের নেতৃত্বে সকাল থেকে চালানো হয় প্রচারনা।

রি-কেকে/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়