পাকিস্তানের লায়ালপুর জেলে বঙ্গবন্ধুর ‘নিঃসঙ্গ লড়াই’

আগের সংবাদ

দেশে বাড়ছে জরায়ুমুখের ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা

পরের সংবাদ

স্বতন্ত্র নয়, তৈমুর হলেন শামীম ওসমানের প্রার্থী: আইভী

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২২ , ৭:২৪ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০২২ , ৭:৩৪ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলমের পাল্টাপাল্টি অভিযোগের মধ্যে প্রচার-প্রচারণায় সরব হয়ে উঠেছে পুরো নগরী। নির্বাচনের আর মাত্র ৭ দিন বাকী। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভীর অভিযোগ, স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার সরকারি দলের একাংশের সমর্থক নিয়ে মাঠ নেমেছেন। অপরদিকে তৈমুর আলম অভিযোগ করেন মেয়র প্রার্থী আইভী সরকারি দলের নেতাকর্মীদের দিয়ে নির্বাচনী মাঠে সভা-সমাবেশ নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করছেন।

এভাবে দুই হেভিওয়েট প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি অভিযোগের মধ্যে দিয়েই চলছে নৌকা ও হাতি প্রতীকের প্রচারণা। থেমে নেই অপর ৫ মেয়র প্রার্থীরাও। তারাও চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। দিচ্ছেন নানা ধরণের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলররা সকল থেকে রাত পর্যন্ত মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। দুপুরের পর থেকে নির্বাচনী প্রচারণায় চারদিকে মাইকিং শুরু হওয়ায় উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হচ্ছে।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) প্রচারনা চলাকালে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডাক্তার আইভী বলেছেন তৈমুর আলম খন্দকার গডফাদার শামীম ওসমানের প্রার্থী। গতকালের তৈমুরের প্রচারণায় তা প্রমাণিত হয়েছে। অন্যদিকে তৈমুর আলম বলেছেন আমি কোনো দলের প্রার্থী না, আমি জনগণের প্রার্থী।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভী শনিবার সকাল থেকে সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের চৌড়াপাড়া এসিআই ফ্লাওয়ার মিলের মোড় থেকে প্রচারণা শুরু করেন। বিকেলে তিনি ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের প্রচারণা চালান। এ সময় ডাক্তার আইভী গণমাধ্যমে বলেন, তৈমুর আলম খন্দকার গডফাদার শামীম ওসমানের প্রার্থী। শুক্রবারের তৈমুরের প্রচারণায় তা প্রমাণিত হয়েছে। তৈমুর আলম খন্দকার সাংসদ শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমানের প্রার্থী। ওই প্রচারণায় জাতীয় পার্টির সাংসদ সেলিম ওসমানের চারজন চেয়ারম্যান তার প্রচারণায় যোগ দিয়েছেন।

আইভী বলেন, তৈমুর আলম খন্দকার সাংসদ শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমানের প্রার্থী। তৈমুর আলম খন্দকার জনগণের প্রার্থী না। সে বিএনপিরও প্রার্থী না। ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আওয়ামী লীগের তৃণমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সকলেই আমার সঙ্গে আছে।

প্রত্যেক ওয়ার্ড লেভেলের নেতাকর্মীরা আমার সঙ্গে মাঠে কাজ করছে। একমাত্র সে (শামীম ওসমান) হয়তো বাইরে গিয়ে তার লোকজনকে প্রভাইড করছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা (হাইকমান্ড) তৈমুর আলমের প্রচারণায় কারা কারা এসেছে সব দেখেছে। পত্রপত্রিকায় সব নিউজ এসেছে। তারা (হাইকমান্ড) দেখছে, তারা সব দেখবে। তিনি বলেন, আমি একটি কথা আপনাদের বলতে চাই, আমি নির্বাচন করি জনগণের শক্তি নিয়ে। জনতাই আমার শক্তি। দল (আওয়ামী লীগ) আমার মনোবল। সব কিছু মিলে আমি নির্বাচন করছি। গডফাদারের দিকে তাকিয়ে আমি নির্বাচন করছি না। আরেক প্রশ্নের জবাবে ডাক্তার আইভী বলেন, তারা কালকে তৈমুর আলমের প্রচারণায় প্রকাশ্যে ছিল। এতে প্রমাণিত হয় কারা তৈমুর আলমকে দাঁড় করিছে। কারা তার পিছন থেকে কলকাঠি নাড়ছে।

অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার সিটি কর্পোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচারণা চালান। প্রচারনাকালে তিনি বলেন আমি দলের প্রার্থী না। আমি জনগণের প্রার্থী। সর্বস্তরের জনগণ আজকে নির্বাচনে মাঠে নেমে পড়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি নারায়ণগঞ্জের ভোটার হতেন তবে আমি তার কাছে ভোট চাইতে যেতাম। আমার দৃঢ় বিশ্বাস তিনি আমাকে ভোট দিতেন। তিনি বিলেন, বিগত ৫০ বছরের স্বচ্ছ এবং নির্ভাল ও গণমুখী কর্মকান্ডের জন্য প্রধানমন্ত্রী আমাকে ভোট দিতেন। তৈমুর আলম বলেন, মানুষ যখন একটা প্রার্থী খুঁজে বেড়াচ্ছিল। তখন গণমানুষের ডাকে সাড়া দিয়ে আমি প্রার্থী হই। নারায়ণগঞ্জের আপামর জনগণ খেটে খাওয়া মানুষ, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ, ছাত্র ও মহিলা সমাজ সকলেই দলমত নির্বিশেষে সকলে আমার পক্ষে নেমেছে।

শামীম ওসমান ও আওয়ামী লীগের সমর্থন প্রসঙ্গে তৈমুর বলেন, আমি তো আওয়ামী লীগের ভোটও চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভোট ও সমর্থনও চাই। আমি তো সকলের ভোট চাই। যাদের নাম আপনারা বলছেন তারা তিন স্তরের এমপি। তো শহরের ভোটার, তারা জনপ্রতিনিধিত্ব করছেন আমিতো তাদেরও ভোট ও সমর্থন চাই। তাদের সঙ্গে পার্সনাল কোন সর্ম্পক আমার সঙ্গে নেই। তিনি আরও বলেন, আমি মাঠে নেমেছি জনগণের সাথে। আমি দলের প্রার্থী না, আমি জনগণের প্রার্থী।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়