ভারতে আবারও লাখের ওপর করোনা শনাক্ত

আগের সংবাদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৪৪ ধারা: ৫০ পয়েন্টে মোতায়েন ৫০০ পুলিশ

পরের সংবাদ

গারো দুই কিশোরী ধর্ষণ: মূল আসামি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২২ , ১২:০৪ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০২২ , ১২:০৬ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহে স্কুলপড়ুয়া দুই গারো কিশোরীকে গণধর্ষণ মামলার মূল আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) সকালে মূল আসামি সোলায়মান হোসেন রিয়াদকে (২২) গ্রেপ্তার করা হয়। গত ৩০ ডিসেম্বর রিয়াদসহ ১০ জন অভিযুক্তকে আসামি করে মামলা করেন এক কিশোরীর বাবা।

অন্য অভিযুক্তরা হলেন- কচুয়াকুড়া গ্রামের শহীদ মিয়ার ছেলে শরিফ (২০), আবদুল হামিদের ছেলে এজাহার হোসেন (২০), কাটাবাড়ি গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে রমজান আলী (২১), তালেব হোসেনের ছেলে কাউছার (২১) দুলাল মিয়ার ছেলে আছাদুল (১৯) মাহতাব উদ্দিনের ছেলে শরিফুল ইসলাম (২১), আবদুল মতিনের ছেলে মিজান (২২), মফিজুল ইসলামের ছেলে রুকন (২১) ও বকুল মিয়ার ছেলে মামুন (২০)।

মামলার নথি সূত্রে জানা যায়, হত্যার হুমকি পেয়ে পরিবার চুপ থাকায় দুই কিশোরী আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এতে বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ দুই কিশোরীর বাড়িতে গিয়ে খোঁজ নেয়।

এর আগে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটের গাজীরভিটা ইউনিয়নের একটি গ্রামে প্রতিবেশীর বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে দুই গারো কিশোরীকে ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের’ অভিযোগ ওঠে।

ধর্ষণের পর এ বিষয়ে কাউকে কিছু জানালে হত্যার হুমকি দেয় আসামিরা। তাই ভুক্তভোগী ও তাদের পরিবার পুলিশের কাছে যায়নি। পরে খবর পেয়ে পুলিশ কিশোরীদের বাড়িতে গেলে গত ৩০ ডিসেম্বর হালুয়াঘাট থানায় নির্যাতিতা এক কিশোরীর বাবা মামলা করেন।

অভিযুক্তদের সবাই এলাকার বখাটে হিসেবে পরিচিত বলে জানিয়েছে পুলিশ। এক বছর আগে তাদের বিরুদ্ধে অন্য এক গারো নারীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ ওঠে। কিন্তু সেসময় সালিশে শুধু সতর্ক করে ছেড়ে দেয়া হয় তাদের। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত ও তাদের পরিবারের লোকজন এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।

এছাড়া পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আসামি সোলায়মান হোসেন রিয়াদ গত ৯ অক্টোবর ভারতীয় তৈরি মদসহ গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যায়। দ্রুতই জামিনে বেরিয়ে এলাকায় ফিরে সে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়