সহিংসতা ও শঙ্কার মধ্যে রাত পোহালেই ৭০৭ ইউপিতে ভোট

আগের সংবাদ

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত দুটোই বাড়লো

পরের সংবাদ

টাকে চুল গজানোর তেল আবিষ্কার ৮৫ বয়সী দম্পতির!

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৪, ২০২২ , ৪:৩৯ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৪, ২০২২ , ৪:৩৯ অপরাহ্ণ

টাকে কীভাবে চুল গজানো যায়? এ নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরেই বিস্তর গবেষণা চলছে। গবেষকদের দলে নাম লিখিয়েছেন ভারতের সুরত রাজ্যের এক দম্পতিও। তবে গবেষণা করেই এ দম্পতি থেমে যাননি। ৮৫ বছরের রাধাকৃষ্ণ এবং শকুন্তলা চৌধুরি টাকে চুল গজানোর সমাধানও খুঁজে বের করেছেন।

দীর্ঘ কর্মজীবন শেষে অনেকেই নিশ্চিন্ত অবসর বেছে নেন। কিন্তু পঁচাশিতে পৌঁছেও তেমন করেননি সুরতের এক দম্পতি। তারা বেছে নিয়েছেন ব্যবসায় অবসর বিনিয়োগের ঝুঁকি। তবে আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য নয়, তাদের ব্যবসা শুরু হয়েছিল মেয়ের চুলপড়ার সমস্যা থেকে। ফলে ব্যবসায়িক মুনাফার বদলে ক্রেতাদেরকে স্বস্তি দিতেই নজর দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন এ দম্পতি।

দীর্ঘ কর্মজীবন শেষে আর পাঁচ জনের মতো অবসরের সুখ থেকে তারা নিজেরাই নিজেদের বঞ্চিত করেছেন, বরং বৃদ্ধ বয়সেও ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নিজেদের কাজে ডুবিয়ে রেখেছেন।

পঁচাশি বছরে এসে চৌধুরি দম্পতি নতুন ব্যবসা শুরু করেন। মেয়ের চুলপড়ার সমস্যার সমাধান খুঁজতে গিয়ে তাদের ব্যবসার শুরুটা হয়েছিল। রাধাকৃষ্ণ ২০১০ সালে পারিবারিক ব্যবসা থেকে অবসর নিয়েছিলেন। দীর্ঘ ৫০ বছরের কর্মজীবন শেষে অবসরের আনন্দও ভোগ করছিলেন। তবে এক দিন তাদের মেয়ের চুল পড়ার সমস্যা নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েন। সেই থেকে শুরু!

চুল পড়ার সমস্যা মেটাতে অন্যদের মতো মেয়েকে সঠিক খাবার খাওয়া বা বাজারে সহজলভ্য ভেষজ তেল মাখার পরামর্শ দেননি রাধাকৃষ্ণ। বরং এক পা এগিয়ে নিজেই তার সমস্যার সমাধান করতে চেয়েছিলেন। রাধাকৃষ্ণ বলেন, চুল পড়া রুখতে হাজারো উপায়ের কথা শোনা যায়। হেয়ারফল মাস্ক লাগানো, ভেষজ বা অর্গ্যানিক তেল ব্যবহার বা ঘরোয়া টোটকায় সমাধান— তবে কিছুতেই আমরা সন্তুষ্ট হতে পারছিলাম না। এর পর নিজেই কিছু করার কথা মনে হয়েছিল।

মাস তিনেক বইপত্তর ঘেঁটে নারকেল, কালো তিল, জলপাই, কালো জিরাসহ ৫০টি ভেষজ দিয়ে একটি তেল তৈরি করে ফেললেন রাধাকৃষ্ণ এবং শকুন্তলা। সেটা গত বছরের জুনের কথা। তবে এ তেল যে আদৌ টাকে চুল গজাতে কাজে আসবে, তার নিশ্চয়তা কী করে পাওয়া যায়? ভেবে ভেবে এক দিন নিজের চওড়া টাকে সে তেল মেখে ফেলেন রাধাকৃষ্ণ।

টাকে তেল মাখার পর আজব কাণ্ড! রাধাকৃষ্ণ বলেন, কিছু দিন পর দেখি আমার টাকে কয়েকটি চুল গজিয়েছে। এর পরই গা-ঝাড়া দিয়ে তিনি সে তেল বিলি করতে শুরু করেন। আত্মীয়স্বজন-বন্ধুবান্ধবদের কাছে বিনামূল্যে তেলটি বিলি করার পর তাদের ইতিবাচক প্রতিক্রিয়াও পেয়েছিলেন এ দম্পতি। এর পরই ওই তেলের ব্যবসা শুরু করার ভাবনা চেপে বসে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়