চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বাদ পড়ছে টটেনহ্যাম

আগের সংবাদ

চীনের তৈরি ১২৫ বগি নিয়ে চালু হচ্ছে কৃষি ট্রেন

পরের সংবাদ

গোবিন্দগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন মা-ছেলে

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২১, ২০২১ , ১২:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ২১, ২০২১ , ১২:৫০ অপরাহ্ণ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে একই সঙ্গে প্রার্থী হয়েছেন মা এবং ছেলে। চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে একই ইউনিয়নে মা-ছেলের নির্বাচনে লড়ার বিষয়টি জনমনে নানা প্রশ্নের পাশাপশি জন্ম দিয়েছে হাস্যরসেরও।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের আছাব উদ্দিনের ছেলে ইমরান হোসেন মিলন ঘোড়া প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। একই ইউনিয়নে তার মা মোছা. মিহিলিকা বেগমও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে টেলিফোন প্রতীকে নির্বাচনে লড়ছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার ভোটাররা যেমন সমালোচনা করছেন, তেমনই আবার অনেকে হাসাহাসিও করছেন।

এ বিষয়ে খোঁজ নিতে তাদের বাড়িতে গেলেও নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত থাকায় কাউকেই পাওয়া যায়নি। তবে মোবাইল ফোনে ঘোড়া প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ছেলে ইমরান হোসেন মিলন বলেন, বিভিন্ন জটিলতার কারণে মা-ছেলে দুজনই মনোনয়নপত্র দাখিল করেন তারা। কিন্তু সময় না পাওয়ায় তার মা মোছা. মিহিকা বেগম প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে পারেননি। ফলে নিয়ম অনুযায়ী তারা মা এবং ছেলে দুজনেরই প্রার্থিতা রয়ে গেছে। তবে কী ধরণের জটিলতার কারণে তারা মা-ছেলে দুজনই প্রার্থী হয়েছিলেন তার কারণ তিনি প্রকাশ করেননি।

শালমারা ইউনিয়নের ভোটাররা জানান, একই পরিবার থেকে মা এবং ছেলের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার ঘটনা এবারই প্রথম ঘটেছে। তাই বিষয়টিকে সাধারণ মানুষ হাস্যরস হিসেবেই দেখছেন।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর এ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে এবার শালমারা ইউনিয়নে মোট সাত জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অন্য প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আনিছুর রহমান আনিস, আবু তাহের মন্ডল শামীম মোটর সাইকেল, আইয়ুব আলী চশমা, আমির হোসেন শামীম তালুকদার অটোরিকশা ও রাসেদ মোশারফ শিবলু আনারস প্রতীক।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়