একদিনের ক্রিকেটেও নেতৃত্ব হাতছাড়া বিরাটের, নতুন নেতা রোহিত

আগের সংবাদ

গাড়ি চালিয়ে ভারত গেলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

পরের সংবাদ

ন্যাটোর সম্প্রসারণ সীমিতের নিশ্চয়তা চেয়েছেন পুতিন

ইউক্রেনে অভিযান চালালে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৮, ২০২১ , ৯:১৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০২১ , ৯:১৪ অপরাহ্ণ

ইউক্রেনে রুশ অভিযান হলে ‘কঠোর অর্থনৈতিক ও অন্য ব্যবস্থা’ গ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) এক ভিডিও কনফারেন্সে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এমন বার্তা দিয়েছেন।

এ সময় ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সৈন্য সমাবেশের উদ্বেগ জানান বাইডেন। তবে রাশিয়া বলছে, তারা ইউক্রেন আক্রমণ করবে না। খবর বিবিসি বাংলার।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, আমরা নিশ্চয়তা চাইছি যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট তার আওতা সম্প্রসারণ করবে না এবং রাশিয়ার কাছাকাছি অস্ত্র ও সৈন্য মোতায়েন করবে না।

বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বাইডেনের সঙ্গে শীর্ষ কর্মকর্তারা।

ধারণা করা হচ্ছে, ইউক্রেন সীমান্তের কাছে ৯০ সহস্রাধিক সৈন্য মোতায়েন করেছে রাশিয়া। একে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। সৈন্য সমাবেশকে কেন্দ্র করে রাশিয়াকে চাপে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

ভিডিও কনফারেন্সে বাইডেন ও পুতিন বৈঠকের শুরুতে দুই নেতাকে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে দেখা যায়। তবে মূল আলোচনাটি ছিল একটি ‘রুদ্ধদ্বার’ বৈঠক। এ বৈঠকের বিষয়ে ক্রেমলিন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট পুতিন জোর দিয়ে বলেছেন এ উত্তেজনার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করা চলবে না। কেননা ইউক্রেনের ভূখণ্ড দখল ও রাশিয়ার সীমান্তের কাছে তাদের সামরিক সক্ষমতা বাড়ানোর ‘ভয়ংকর চেষ্টা’ করছে। এ কারণে ‘ন্যাটোর সম্প্রসারণ’ ও ‘রাশিয়ার প্রতিবেশী দেশে আক্রমণাত্মক অস্ত্র মোতায়েন’ বন্ধের নিশ্চয়তা চেয়েছেন।

তবে হোয়াইট হাউস সূত্রে জানা গেছে, প্রেসিডেন্ট বাইডেন ‘ন্যাটোর সম্প্রসারণ সীমিত করার কোনো নিশ্চয়তা দেননি’। এর ফলে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার দেশের পক্ষে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অকুণ্ঠ সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

গত জুনে সুইজারল্যান্ডে সর্বশেষ বৈঠকে করমর্দন করছেন বাইডেন ও পুতিন

রাশিয়ার বিরুদ্ধে বাইডেনের যৌথ কৌশল

পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের আগে ইউরোপীয় নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সোমবার রাতে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি ও ইতালির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের বৈঠক হয়। সেখানে ইউক্রেনে অভিযান চালানো হলে রাশিয়ার অর্থনীতির গুরুতর ক্ষতি হয় এমন যৌথ কৌশল নেওয়া হয়।

জানা গেছে, পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের পর প্রেসিডেন্ট বাইডেন আবার এ চার দেশের সঙ্গে আলাপ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেইক সুলিভ্যান বলেন, ‘আগামী দিনগুলোতে প্রয়োজন হতে পারে’ বিষয়টি খেয়াল রেখে বাইডেন প্রশাসন সুনির্দিষ্ট পাল্টা পদক্ষেপগুলো কী হবে সেটি তৈরি করে রাখছে।

এসব পদক্ষেপের মধ্যে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি ওই অঞ্চলের ন্যাটো মিত্রদেশগুলোতে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন ও ইউক্রেনকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দেয়া হবে বলে জানা গেছে। সুলিভ্যানের সঙ্গে রাশিয়া থেকে জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহের নর্ডস্ট্রিম টু পাইপলাইন বন্ধ করার মতো পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে।

এছাড়া, রাশিয়ার ব্যাংকগুলো তাদের মুদ্রা রুবল বিদেশি মুদ্রায় পরিবর্তনের ওপর বিধিনিষেধ, এমনকি বৈশ্বিক অর্থ পরিশোধের পদ্ধতি সুইফট থেকে রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলার মতো ব্যবস্থাও সম্ভাব্য পদক্ষেপের মধ্যে থাকতে পারে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়