নো ভ্যাকসিন, নো সার্ভিস নিয়ে বিতর্ক কেন

আগের সংবাদ

রফিকুল ইসলামের প্রয়াণ : তার কর্ম ও সাধনা হোক আমাদের প্রেরণা

পরের সংবাদ

নভেম্বরে দেড় বছরে সর্বনিম্ন রেমিট্যান্স

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২, ২০২১ , ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২১ , ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

চলতি অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসেই রেমিট্যান্সের ধারাবাহিক পতন দেখা দিয়েছে। সেই ধারাবাহিকতা নভেম্বরে অব্যাহত ছিল। এ মাসে প্রবাসীরা ১৫৫ কোটি ৩৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন দেশে। গত দেড় বছরের মধ্যে এটি মাসের হিসাবে সর্বনিম্ন।

এর আগে গত বছরের মে মাসে দেশে ১৫০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল। এরপর বছরখানেক ধারাবাহিকভাবেই রেমিট্যান্স বেড়েছে। এর মধ্যে রেমিট্যান্স আগের সব রেকর্ডও ছাড়িয়ে গেছে। তবে এক বছর পর আবার কমতে শুরু করেছে রেমিট্যান্স। গত বছরের মে মাসের পর আর এক মাসে এত কম রেমিট্যান্স দেশে আর আসেনি।

রেমিট্যান্স প্রবাহ কমে যাওয়া ব্যাপারে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অর্থ উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, এতদিন মূলত তিনটি কারণে দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়ছিল। প্রথমত, অনেক প্রবাসী বিদেশে চাকরি হারিয়েছিলেন বা চাকরি হারানোর আশঙ্কায় ছিলেন। ফলে তারা সব সঞ্চয় দেশে পাঠিয়ে দিচ্ছিলেন। দ্বিতীয়ত, সরকার দুই শতাংশ রেমিট্যান্স প্রণোদনা ঘোষণা করায় বৈধ পথে রেমিট্যান্স বেড়েছিল। তৃতীয়ত, করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে প্রবাস থেকে দেশে আসা মানুষের সংখ্যা কমে গেছে। ফলে যারা হাতে হাতে টাকা পাঠাতেন, তখন তারা ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছিলেন। এসব কারণেই রেমিট্যান্স প্রবাহের উর্ধ্বগতি ছিল লক্ষণীয়।

রেমিট্যান্স প্রবাহ কমে যাওয়ার প্রভাব নিয়ে ড. মির্জ্জা আজিজ আরও বলেন, সবশেষ পাঁচ মাসে ধারাবাহিকভাবে রেমিট্যান্স কমেছে। এটি অনেকটাই বাস্তবসম্মত। তারপরেও অর্থনীতির জন্য এটি চিন্তার বিষয়। রেমিট্যান্স প্রবাহ কমে গেলে দেশের অর্থনীতিতে চাপ বেড়ে যেতে পারে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, চলতি নভেম্বর মাসসহ টানা পাঁচ মাস ধরে কমে আসছে রেমিট্যান্স প্রবাহ। সবশেষ নভেম্বর মাসে প্রবাসীরা ১৫৫ কোটি ৩৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এটি আগের অক্টোবর মাসের তুলনায় ৯ কোটি ২১ লাখ ডলার কম। ওই মাসে প্রবাসীরা ১৬৪ কোটি ৬৮ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর আগে সেপ্টেম্বরে ১৭২ কোটি ৬৩ লাখ ডলার, আগস্টে ১৮১ কোটি ডলার ও জুলাইয়ে ১৮৭ কোটি ১৪ লাখ ৯০ হাজার ডলার রেমিট্যান্স আসে দেশে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়