দাসত্বের অবসান: ৩০০ বছর পর ‘গণতন্ত্র’ ফিরছে এই দেশে

আগের সংবাদ

আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

পরের সংবাদ

কি কাজ করে প্রশংসায় ভাসছেন ঐশ্বরিয়া

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:৫২ অপরাহ্ণ

নিজের হাতে ৩০ জনকে খাবার পরিবেশন করে তার পরেই নিজে খেতে বসেছিলেন ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন। সুরকার বিশাল দাদলানির সৌজন্যে বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূর সম্পর্কে বেরিয়ে এল এমনই তথ্য।

সুজয় ঘোষ প্রযোজিত ‘বব বিশ্বাস’ ছবির প্রচারে বিভিন্ন রিয়্যালিটি শো-এ উপস্থিত হয়েছেন অভিষেক বচ্চন এবং চিত্রাঙ্গদা সিংহ। সম্প্রতি একটি গানের অনুষ্ঠানে বিচারক বিশাল দাদলানির মুখোমুখি হয়েছিলেন তারা। সেখানেই অভিষেক-পত্নী ঐশ্বর্যার প্রসঙ্গ তোলেন গায়ক-সঞ্চালক আদিত্য নারায়ণ। উদিত নারায়ণের ছেলে নতুন বব বিশ্বাস-কে প্রশ্ন করেন, ঐশ্বর্যা কখনও সংসার সামলেছেন? ঘরোয়া কাজকর্ম করেছেন? অভিষেকের আগেই প্রশ্নের উত্তর দেন বিশাল।

বিশাল জানান, অমিতাভ বচ্চন এবং ঐশ্বর্যার সঙ্গে একটি কাজের সফরে গিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন আরও ৩০ জন। একদিন সেই ৩০ জনই আবদার করেন, অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে নৈশভোজ সারবেন। সাধারণত লোকসংখ্যা বেশি হলে নিজে নিজের খাবার নিয়ে নেওয়ার বন্দোবস্ত থাকে। কিন্তু অভিষেকের স্ত্রী জানিয়ে দেন, স্বহস্তে সকলকে পরিবেশন করবেন তিনি।

বিশালের কথায়, ঐশ্বর্যার কিন্তু প্রয়োজন ছিল না কোনও কাজ করার। সেখানে অনেক মানুষ ছিলেন, যারা অতিথিদের থালায় খাবার পরিবেশন করতে পারতেন। সবচেয়ে বড় কথা, সেখানে ক্যামেরাও ছিল না। অনেক ক্ষেত্রে ক্যামেরায় নিজেকে অন্য ভাবে তুলে ধরতে কেউ কেউ মানুষের সেবা করে থাকেন।

কাউকে দেখানোর জন্য ঐশ্বর্যা কিছু করেননি। অতিথিদের ভালবেসেই তিনি এই কাজটি করেছিলেন। বিশাল জানান, খাওয়া দাওয়ার পরে সকলকে মিষ্টিমুখ করিয়ে তারপরই নিজে খেতে বসেন বিশ্বসুন্দরী।

সুরকারের কথায় সহমত পোষণ করে অভিষেক বলেন, ঐশ্বর্যা আসলে ভারতীয় ঐতিহ্যকে বহন করে চলায় বিশ্বাসী। আমাদের মেয়ে আরাধ্যাকেও সে সব শেখায়।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়