আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা

আগের সংবাদ

ঢাবির ঘ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ৯০ শতাংশই ফেল

পরের সংবাদ

২১ বছরে ১৯৬ দেশ ভ্রমণ করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন মার্কিন কন্যা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২১ , ১:৪৬ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২১ , ১:৪৯ অপরাহ্ণ

ছোট থেকে বড় কম বেশি সবাই ঘুরতে যেতে পছন্দ করেন। কিন্তু খুব অল্প বয়সে কয়জন বা ভ্রমণ করে বিশ্ব রেকর্ড করতে পারেন। অনেকে পরিকল্পনা করেন কোন কোন জায়গায় ঘুরতে যাবেন কিন্তু শেষমেষ দেখা যায় কোনো কারণে যাওয়া হয় না। আবার কেউ কেউ থাকে, যে কোনও উপায়ে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছায়। তেমনই এক জন হলেন লেক্সি অ্যালফর্ড। মার্কিন কন্যা মাত্র ২১ বছর বয়সে ১৯৬ দেশ ভ্রমণ করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন। তিনি এই বয়সে উত্তর কোরিয়া পর্যন্ত ঘুরে এসেছেন। সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বের সব কয়টি দেশে পা রাখার জন্য গিনিস রেকর্ডে নাম উঠেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক লেক্সির বয়স এখন ২৩ বছর। সংবাদমাধ্যমে জানান, ছোটবেলা থেকেই বেড়াতে ভালবাসেন। বিভিন্ন দেশ দেখা শুরু হয় বেশ কম বয়সেই। তার বাবা-মা ক্যালিফর্নিয়ায় একটি ট্র্যাভেল এজেন্সি চালান। সেই সূত্রেই নতুন দেশ দেখা শুরু। এখন লেক্সির ইনস্টাগ্রামের পাতা ভর্তি নানা দেশে ভ্রমণের ছবিতে। ১৯৬টি দেশ দেখেছেন তিনি। সংবাদমাধ্যমে লেক্সি জানিয়েছেন, ছোটবেলায় অনেক দিনের জন্য দেশের বাইরে থাকতেন বাবা-মায়ের সঙ্গে। লেখাপড়াও হত বিভিন্ন দেশে ঘুরতে ঘুরতেই। সে সময়েই কম্বোডিয়ার ফ্লোটিং ভিলেজ থেকে মিশরের পিরামিড, সব দেখা হয়ে গিয়েছে তার। পরে একা ঘোরা শুরু করেন। যে সব জায়গায় যাওয়া অসম্ভব মনে করেন অনেকে, সেখান থেকে ঘুরে আসার ইচ্ছাও হয় তার। এ সময় থেকেই বিশ্ব ভ্রমণের বিষয়ে আরও ভাবনা-চিন্তা শুরু করেন। এর আগে মনের আনন্দেই বেড়াতেন শুধু।

২০১৬ সালে ঠিক করেন, পৃথিবীর সব কয়টি দেশ ঘুরে দেখতে হবে। তখন তার বয়স ১৮। তত দিনে ৭২টি দেশ ঘুরে ফেলেছেন তিনি। তিন বছরের মধ্যে বাকি সব দেশে ঘোরেন।

গোটা দুনিয়া ঘুরে বেড়ানোর খরচ জোগালেন কে? নিজের রোজগারেই সবটা করেছেন এই তরুণী। তিনি বলেন, যখন যেখানে যেমন কাজ পেয়েছি, করেছি। সেই টাকায় পরের দেশটি দেখার পরিকল্পনা করেছি। এ ভাবেই চলেছে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়