অল্পে বেঁচে গেলেন নভোএয়ারের যাত্রীরা

আগের সংবাদ

হেফাজত নেতাদের দুর্নীতি অনুসন্ধান যে কারণে স্থবির

পরের সংবাদ

বিশ্বে মৃত্যুর তৃতীয় কারণ হবে সিওপিডি: বিশেষজ্ঞদের অভিমত

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৮, ২০২১ , ৮:৪৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১৮, ২০২১ , ৮:৪৪ পূর্বাহ্ণ

সিওপিডি শ্বাসতন্ত্রের একটি জটিল রোগ। অসংক্রামক রোগগুলোর মধ্যেও সিওপিডি অন্যতম শীর্ষস্থানীয় রোগ। শিগগিরই পৃথিবীব্যাপী মৃত্যুর যে কারণগুলো আছে, এর মধ্যে এই রোগটির অবস্থান হবে তৃতীয়। তাই ভয়ংকর এই রোগ সম্পর্কে আমাদের ভালোভাবে জানতে হবে এবং প্রতিরোধে সচেষ্ট থাকতে হবে। গতকাল বুধবার বিশ্ব সিওপিডি দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞরা এ পরামর্শ দেন।

সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) বক্ষব্যাধি বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কোষাধ্যক্ষ ও বক্ষব্যাধি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ। উপস্থিত ছিলেন উপউপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. জাহিদ হোসেন, উপউপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেন, উপউপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, নার্সিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. হাবিবুর রহমান দুলাল, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান প্রমুখ। দিবসটি উপলক্ষে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে উদ্বোধন করা হয় আধুনিক চিকিৎসাসেবা সংবলিত বক্ষব্যাধি জরুরি ও করোনা-পরবর্তী যত্ন সেবা কেন্দ্র।

অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, ধূমপান না করা, কলকারখানার ধোঁয়াসহ সব ধরনের ধোঁয়া থেকে দূরে থাকা, তামাক চাষ বন্ধ করা এবং তামাকজাতীয় দ্রব্য বিক্রয় নিষিদ্ধ করার মাধ্যমে সিওপিডিও রোগ অনেকটাই বিনাশ করা সম্ভব। সিওপিডি হলো শ্বাসতন্ত্রের দীর্ঘমেয়াদি প্রদাহজনিত রোগ। দীর্ঘ সময়ব্যাপী বিভিন্ন বিষাক্ত ও ক্ষতিকারক উপাদান শ্বাসতন্ত্রে প্রবেশের ফলে শ্বাসনালি ও ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং আক্রান্ত স্থানে প্রদাহ তৈরি হয়। এছাড়া আক্রান্ত ফুসফুসের ছোট ছোট বায়ু কুঠুরিগুলো নিষ্ক্রিয় হয়ে যায় (এমফাইসিমা) অথবা শ্বাসনালির অংশগুলোর আবরণের ধরন পরিবর্তিত হয়ে বাড়তি মিউকাস নিঃসরণ করে এবং সিলিয়া বা প্রক্ষেপযুক্ত আবরণীয় সংখ্যা কমে যায় (ব্রংকাইটিস)। ফলে দীর্ঘমেয়াদি কাশি, কফ নিঃসরণ ও শ্বাসকষ্ট ইত্যাদি সমস্যা ধীরে ধীরে প্রচ্ছন্ন হয়ে উঠতে থাকে। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে সমস্যাগুলো প্রকট আকার ধারণ করে এবং একসময় এমন অবস্থায় এসে পৌঁছায় যে তখন রোগী নিজের দৈনন্দিন কাজকর্ম করতেও শ্বাসকষ্টে ভোগেন। একই সঙ্গে দানা বাঁধে সিওপিডিজনিত অন্যান্য জটিলতা যেমন হৃদরোগ, মাংসপেশির দুর্বলতা, ওজন হ্রাস, বিষণ্নতা, ফুসফুসের ক্যান্সার ইত্যাদি নানা ধরনের বাড়তি সমস্যা। কারণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ধূমপানই সিওপিডির প্রধানতম কারণ।

অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার কমলেও এই ভাইরাসটি এখনো বিশ্বব্যাপী বিদ্যমান। বর্তমান এই সময়ে বিশ্ব সিওপিডি দিবস পালন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। মুখে মাস্ক অবশ্যই পরতে হবে। ধূমপান পরিহার ও দূষণমুক্ত পরিবেশ গড়ে তোলার মাধ্যমে সিওপিডি রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়