এইচএসসির ২০২২ সালের পরীক্ষাও সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে

আগের সংবাদ

যুবলীগ নেতা শাহাবুদ্দিনের সম্পদের হিসাব চেয়েছে দুদক

পরের সংবাদ

দিহানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ-হত্যার সত্যতা পেয়েছে পিবিআই

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৮, ২০২১ , ৬:০৪ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১৮, ২০২১ , ৬:০৪ অপরাহ্ণ

রাজধানীর কলাবাগানে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল মাস্টারমাইন্ডের ‘ও’ লেভেলের এক শিক্ষার্থীকে (১৭) ধর্ষণ করে হত্যার অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এ মামলার একমাত্র আসামি ফারদিন ইফতেখার দিহানকে (১৮) অভিযুক্ত করে সম্প্রতি আদালতে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। চার্জশিটের ওপর শুনানির জন্য আগামী ২২ নভেম্বর দিন ধার্য করা হয়েছে।

চার্জশিটে বলা হয়েছে, আসামি দিহান ভিকটিমকে ফুসলিয়ে তার নির্জন বাসায় এনে অমানবিকভাবে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এছাড়া বর্বরোচিত ও পৈশাচিকভাবে ফরেন বডি ভিকটিমের গোপনাঙ্গে প্রবেশ করান। ধর্ষণের সময় আসামি দিহানের অমানবিক কার্যকলাপের কারণে গোপনাঙ্গে প্রচুর রক্তক্ষরণের সৃষ্টি হলে ভিকটিম অচেতন হয়ে পড়েন। আসামি ধর্ষণের বিষয়টি কৌশলে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য ভিকটিমকে সঙ্গে নিয়ে আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান।

সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভিকটিমকে মৃত ঘোষণা করেন। ধর্ষণের পর আসামি দিহান ভিকটিমের পরনের ভেতরের পোশাক ঘটনাস্থলে ফেলে রেখে নিজের টি শার্ট ও প্যান্ট পরিয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু পুলিশ খুব দ্রুত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ডাকে সাড়া দিয়ে সেখানে চলে যাওয়ায় আসামি দিহান পালানো বা অন্য কোনো পরিকল্পনা করতে ব্যর্থ হন। সাক্ষ্যপ্রমাণে আসামি দিহানের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(২) ধারায় অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

গত ৮ নভেম্বর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এচার্জশিটটি দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক খালেদ সাইফুল্লাহ। চার্জশিটে ৫৫ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

এর আগে, এ বছরের ৭ জানুয়ারি রাতে ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দিহানকে একমাত্র আসামি করে কলাবাগান থানায় মামলা করেন ওই ছাত্রীর বাবা। এরপর মামলাটিতে ৮ জানুয়ারি ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদের আদালতে নিজের দোষ স্বীকার করে স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দেন দিহান

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়